বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এদিকে লেনদেন বৃদ্ধির পাশাপাশি আজ ব্যাংক খাতের অধিকাংশ শেয়ারেরও দাম বেড়েছে। ডিএসইতে আজ লেনদেন হওয়া ৩২ ব্যাংকের মধ্যে ৩১টিরই দাম বেড়েছে, কমেছে মাত্র ১টির। আর ব্যাংকের শেয়ারের মূল্যবৃদ্ধির ফলে দিন শেষে সূচকও বেড়েছে শেয়ারবাজারে। ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আজ দিন শেষে ৩১ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭ হাজার ৯২ পয়েন্টে।

ঢাকার বাজারে আজ লেনদেনের শীর্ষ ২০ কোম্পানির মধ্যে ৯টিই ছিল ব্যাংক। আবার মূল্যবৃদ্ধির শীর্ষ ১০ কোম্পানির মধ্যে ২টি ছিল ব্যাংক। গত সোমবার শেয়ারের বিপরীতে ঋণ বিতরণের ক্ষেত্রে নতুন বিধান করেছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। এরপর থেকেই মূলত শেয়ারবাজারে ব্যাংক খাতের শেয়ারের সম্মিলিত লেনদেনের পরিমাণ বাড়তে শুরু করে।

বিএসইসির নতুন বিধান অনুযায়ী, যেসব শেয়ারের মূল্য আয় অনুপাত (পিই রেশিও) ৪০-এর কম, সেসব শেয়ারে এখন থেকে ১০০ টাকার বিপরীতে সর্বোচ্চ ৮০ টাকা (১: ০.৮) ঋণসুবিধা পাবেন বিনিয়োগকারীরা। আগে সর্বোচ্চ ঋণসুবিধার এ বিষয় সূচকের সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিল। ঢাকার বাজারের প্রধান সূচক ডিএসইএক্স সর্বোচ্চ ৮ হাজারে না পৌঁছানো পর্যন্ত সর্বোচ্চ হারে ঋণসুবিধা দেওয়ার বিধান ছিল আগে। পাশাপাশি যেসব শেয়ারের পিই রেশিও ৪০ বা তার বেশি, সেসব শেয়ার ঋণের অযোগ্য বিবেচিত হতো।

এখন ঋণের বিষয়টি সূচকের সঙ্গে সম্পৃক্ত না রেখে শুধুমাত্র পিই রেশিওর সঙ্গে সম্পৃক্ত করে দেওয়া হয়েছে। এরপর থেকে ব্যাংক খাতের শেয়ারের প্রতি সাধারণ বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ বেড়ে যায়। বর্তমানে সার্বিকভাবে ব্যাংক খাতের পিই রেশিও ১০–এর নিচে রয়েছে।

শেয়ারবাজারে আজ এক দিনে ৩৭ কোম্পানির শেয়ারের লেনদেন বন্ধ ছিল। এ কারণে বাজারের লেনদেনও আগের দিনের চেয়ে ৪৬ কোটি টাকা কমে গেছে।

বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন