default-image

২০৫০ সালের মধ্যে শতভাগ নবায়নযোগ্য জ্বালানীতে যেতে সমীক্ষা ও একটি কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন করার সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি। দেশের জাতীয় উদ্যানগুলো বছরের একটি নির্দিষ্ট সময় বন্ধ রাখারও সুপারিশ করেছে কমিটি।

জাতীয় সংসদ ভবনে রোববার অনুষ্ঠিত পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সংসদীয় কমিটির বৈঠকে এসব সুপারিশ করা হয়।

বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি সাবের হোসেন চৌধুরী প্রথম আলোকে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী দুই বছরের জন্য ক্লাইমেট ভারনারেবল ফোরামের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। ফোরামের দেশগুলো ২০৫০ সালে মধ্যে শতভাগ নবায়নযোগ্য জ্বালানিতে যাবে। বাংলাদেশে এখন মাত্র চার শতাংশ আসছে নবায়নযোগ্য জ্বালানি থেকে। ২০৫০ সালের মধ্যে শতভাগে যেতে কারিগরি ও অর্থনৈতিক দিকগুলো নিয়ে সমীক্ষা হওয়া দরকার। কমিটি সেটি করতে বলেছে। এরপর একটি রোডম্যাপ করা হবে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণে পর্যটন পুরোপুরি বন্ধ। এতে প্রকৃতি যেন নিজের আসল রূপে ফিরে আসার সুযোগ পেয়েছে। এই অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে বছরের একটি নির্দিষ্ট সময় জাতীয় উদ্যানগুলো বছরের নির্দিষ্ট সময় বন্ধ রাখার সুপারিশ করেছে কমিটি। এ বিষয়ে একটি নীতিমালা করা হবে।

সাবের হোসেন চৌধুরী প্রথম আলোকে বলেন, করোনার এই সময়ে প্রকৃতি যেমন ফিরে এসেছে নিজের রূপে। তেমনি ডলফিন, শেয়ালসহ বন্য প্রাণি হত্যার ঘটনাও দেখা গেছে। এখনকার বন আইনে শুধু বাঘ ও হাতি হত্যা অজামিনযোগ্য অপরাধ। তারা বন আইন সংশোধনে কাজ করছেন। সেখানে সব ধরনের বন্য প্রাণী হত্যাকে অজামিনযোগ্য অপরাধ হিসেবে আনা হচ্ছে।

সাবের হোসেন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন, উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার, দীপংকর তালুকদার, নাজিম উদ্দিন আহমেদ, রেজাউল করিম এবং খোদেজা নাসরিন আক্তার হোসেন বৈঠকে অংশ নেন।

বিজ্ঞাপন
বাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন