default-image

নতুন অর্থবছরের জন্য পাঁচ লাখ ৬৮ হাজার কোটি টাকার বাজেট জাতীয় সংসদে পাস হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠকে ২০২০-২১ অর্থবছরের এই বাজেট প্রস্তাব কণ্ঠভোটে পাস হয়। ১ জুলাই থেকে এ বাজেট কার্যকর হবে।

সকালে সংসদের অধিবেশন শুরু হলে প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর আনা ছাঁটাই প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা শুরু হয়।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জন্য বরাদ্দ প্রস্তাব উত্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর একে একে অন্য মন্ত্রীরা তাদের স্ব স্ব মন্ত্রণালয়ের প্রস্তাব উত্থাপন করেন। কণ্ঠভোটে সেসব প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়। এর মধ্যে স্বাস্থ্য ও আইন মন্ত্রণালয়ের ছাঁটাই প্রস্তাবের ওপর সাংসদেরা আলোচনায় অংশ নেন।

সবার শেষে নির্দিষ্টকরণ বিল পাসের মধ্য দিয়ে বাজেট পাস হয়। এ সময় সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ সংসদে সরকারি বিরোধীদলীয় সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত সদস্যরা টেবিল চাপড়ে অর্থমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানান।

বাজেট অধিবেশনে দীর্ঘ আলোচনার ইতিহাস থাকলেও এবার আলোচনা হয়েছে খুবই কম।

গত ১১ জুন সংসদে বাজেট পেশ করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। অধিবেশনে প্রতিদিন গড়ে ৮০–৯০ জন সাংসদ অংশ নিয়েছেন। মাত্র একদিন আলোচনা করেই সম্পূরক বাজেট পাস করা হয়। মূল বাজেটের ওপর আলোচনা হয় দুইদিন। এ পর্যন্ত মোট সাত কার্যদিবস চলেছে সংসদের অধিবেশন। আর একদিন চলার পর অধিবেশনের সমাপ্তি টানা হতে পারে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0