বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে জানানো হয়, পরিবেশ অধিদপ্তরের নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে পরিবেশদূষণ রোধে বাংলাদেশ ব্যাংক বাতিল নোট পুড়িয়ে ধ্বংস করার পরিবর্তে তা বিনষ্টকরণে শ্রেডেড পদ্ধতি (ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র টুকরায় পরিণত করা) অনুসরণ করে আসছে। প্রতিনিয়ত শ্রেডিং কার্যক্রম পরিচালনা করায় বাংলাদেশ ব্যাংকে শ্রেডেড টুকরাসমূহ বস্তাবন্দী অবস্থায় স্তূপাকারে জমা হয়ে থাকায় স্থানসংকুলান হচ্ছে না। এ জন্য নোটের টুকরা বর্জ্য হিসেবে সিটি করপোরেশনের ব্যবস্থাপনায় নির্ধারিত ময়লা ফেলার স্থানে (ভাগাড়ে) অপসারণের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক ও সিলেট সিটি করপোরেশনের মধ্যে এই সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়।

সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী এখন থেকে প্রতি মাসে এক দিন বাংলাদেশ ব্যাংকের সিলেট শাখার চত্বর থেকে সিটি করপোরেশনের নির্ধারিত বর্জ্য অপসারণ পরিবহনে নোটের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র শ্রেডেড টুকরা বর্জ্য হিসেবে হস্তান্তর করা হবে। সিটি করপোরেশনের নির্ধারিত ময়লা ফেলার স্থানে নোটের টুকরা ফেলার বিষয়টি নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের দুজন কর্মকর্তা ও সিটি করপোরেশনের একজন কর্মকর্তার সমন্বয়ে একটি প্রতিনিধিদল গঠন করা হয়। এ দুই প্রতিষ্ঠানের তিনজন কর্মকর্তার উপস্থিতিতে প্রতি মাসে এ কাজ সতর্কতার সঙ্গে করা হবে বলে অনুষ্ঠান থেকে জানানো হয়।

সমঝোতা স্মারক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিজিএম (প্রশাসন) খালেদ আহমদ, ডিজিএম (ব্যাংকিং) মো. আমিনুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, অচল টাকার শ্রেডেড টুকরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব ও সতর্কতার সঙ্গে পরিবহন করা হবে। এরপর ময়লার ভাগাড়ে ফেলে লেভেলার মেশিন দিয়ে ময়লার সঙ্গে ভালো করে মেশানোর কাজটিও সর্বোচ্চ সতর্কতার সঙ্গে করতে বিশেষ নজরদারির মধ্যে রাখা হবে।

ব্যাংক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন