বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জানতে চাইলে ফার্স্ট ফাইন্যান্সের চেয়ারম্যান খান মোহাম্মদ মইনুল হাসান প্রথম আলোকে বলেন, ‘এমডি পদত্যাগ করেছিলেন, কিন্তু তা কার্যকর করা হয়নি। কেউ হয়তো নিজের সুবিধার জন্য তাঁকে পদত্যাগ করতে বলেছিলেন। এ জন্য উনি পদত্যাগ করেছিলেন। কিন্তু ওনার মতো ব্যক্তিকে এই প্রতিষ্ঠানের খুব প্রয়োজন।’

মোশাররফ হোসেনের আগে ফার্স্ট ফাইন্যান্সের ভারপ্রাপ্ত এমডি ছিলেন তুহিন রেজা। প্রতিষ্ঠানটি তাঁকে এমডি করতে চাইলেও কেন্দ্রীয় ব্যাংক তাঁর নিয়োগ অনুমোদন দেয়নি। তিন দফায় তাঁর আবেদন নাকচ করে দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। এখন তিনি ফার্স্ট ফাইন্যান্সে অতিরিক্ত এমডি হিসেবে কর্মরত।

প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান খান মোহাম্মদ মইনুল হাসান বলেন, ‘আমাদের সব ঋণ বিভিন্ন ব্যবসায়ীর হাতে। যাঁদের কাছে টাকা আটকে গেছে, তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ হচ্ছে। আশা করছি চলতি বছর প্রতিষ্ঠানটির অবস্থার কিছুটা উন্নতি হবে।’

ব্যাংক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন