default-image

অনলাইনভিত্তিক প্রতিষ্ঠানগুলো এখন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অনুমোদন ছাড়াই বছরে ১০ হাজার ডলার পর্যন্ত খরচ করতে পারবে। নতুন এই সুযোগ পাবে কেবল ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ই-ক্যাব) সদস্যরা। বাংলাদেশ ব্যাংক আজ রোববার এক প্রজ্ঞাপন জারি করে ব্যাংকগুলোকে এই নির্দেশনা দিয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, নতুন সুবিধার আওতায় ই-ক্যাবের সদস্য প্রতিষ্ঠান বছরে ১০ হাজার ডলার বৈদেশিক ব্যয় খরচ করতে পারবে। বার্ষিক কোটা সীমার মধ্য থেকে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের মনোনীত কর্মকর্তার নামে ২ হাজার ডলারের আন্তর্জাতিক ক্রেডিট/প্রিপেইেড কার্ড ইস্যু করা যাবে। ওই কার্ডে পুনরায় বৈদেশিক মুদ্রা যুক্ত করা যাবে। তবে কার্ডের মাধ্যমে এবং প্রচলিত ব্যাংকিং ব্যবস্থার আওতায় বিদেশে প্রেরিত অর্থের পরিমাণ কোনো অবস্থাতেই ১০ হাজার ডলারের বেশি হতে পারবে না।

বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা বলেন, বৈদেশিক লেনদেন ব্যবস্থা প্রতিনিয়ত সময়োপযোগী করা হচ্ছে। নতুন বিধান ফলে ই-কমার্সের ব্যবসায়িক কার্যক্রম আরও সহজ হবে।

বিজ্ঞাপন

বার্ষিক কোটার আওতায় বিদেশে রেমিট্যান্স প্রেরণের ক্ষেত্রে বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেন বিধিবিধান, কর/ভ্যাট কর্তন ও জমা, ই-ক্যাবের সুপারিশসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় পরিপালনের জন্য অনুমোদিত ডিলার ব্যাংকগুলোকে নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এই সিদ্ধান্তের বিষয়ে ই-ক্যাবের ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ সাহাব উদ্দিন প্রথম আলোকে বলেন, ‘ডোমেইন কেনাকাটা, হোস্টিং, আন্তর্জাতিক পরামর্শ ও কিছু পণ্য কেনার জন্য আমাদের বৈদেশিক মুদ্রা প্রয়োজন হয়। আগে এসব খরচের জন্য আলাদা আলাদা অনুমোদন নিতে হতো। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এই সিদ্ধান্তে খরচ পাঠাতে কোনো সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে না।’

ব্যাংক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন