default-image

সাবেক ডেপুটি গভর্নর এস কে সুর চৌধুরী ও নির্বাহী পরিচালক মো. শাহ আলম ব্যাংকে কত টাকা লেনদেন করেছেন, সেই তথ্য জানতে চেয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। একই সঙ্গে তাঁদের পরিবারের সদস্যদের ব্যাংক হিসাবের তথ্যও চাওয়া হয়েছে। পাশাপাশি এসব হিসাবে কত টাকা জমা আছে, তা–ও জানতে চেয়েছে বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ)।

আলোচিত প্রশান্ত কুমার হালদারের আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে ঘুষ নেওয়ায় কারণে আলোচনায় আছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাবেক ও বর্তমান এই দুই কর্মকর্তা। দুর্নীতি দমন কমিশনের চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে বিএফআইইউ এই তথ্য চেয়েছে।

চিঠিতে সুর চৌধুরী ও তাঁর স্ত্রী সুপর্না সুর চৌধুরী এবং শাহ আলম ও তাঁর দুই স্ত্রী শাহীন আক্তার শেলী এবং নাসরিন বেগমের নাম উল্লেখ রয়েছে। এঁদের সবার হিসাব খোলার ফরম, যাবতীয় লেনদেন ও স্থিতি কেন্দ্রীয় ব্যাংকে পাঠাতে বলা হয়েছে।

সম্প্রতি জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) গোয়েন্দা সেল থেকেও সুর চৌধুরী ও শাহ আমলের তথ্য চেয়ে ব্যাংকগুলোতে চিঠি দেওয়া হয়। মূলত পি কে হালদারের নিয়ন্ত্রণাধীন ইন্টারন্যাশনাল লিজিংয়ের সাবেক এমডি রাশিদুল ইসলামের আদালতে দেওয়া জবানবন্দিতে এই দুজনের ঘুষ নেওয়ার বিষয়টি উঠে আসে। এ ছাড়া পিপলস লিজিংয়ের চেয়ারম্যান উজ্জ্বল কুমার নন্দীও তাঁদের সুবিধা দেওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করেন।

বিজ্ঞাপন
ব্যাংক থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন