বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

একটি দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নের একটি অপরিহার্য সূচক হলো আবাসিক ভবনের বিবর্তন। এটি ভবনের বাসিন্দার জীবনযাত্রার মানেরও একটি মানদণ্ড। এর মাধ্যমে রুচিরও বহিঃপ্রকাশ ঘটে। গত কয়েক দশকে ঢাকার আবাসন খাতে বিপুল উন্নয়ন ঘটছে। এই সময় চোখধাঁধানো কিছু আধুনিক স্থাপত্য নির্মাণ করা হয়েছে। ঢাকার এই নান্দনিক রূপান্তর দেশের বড় বড় রিয়েল এস্টেট ডেভেলপারের নেতৃত্বেই হয়েছে। আর এর মধ্যে অত্যাধুনিক সুযোগ-সুবিধাসংবলিত নান্দনিক স্থাপনা (বাসস্থান) তৈরির মাধ্যমে এডিসন রিয়েল এস্টেট দ্রুত সামনের দিকে অগ্রসর হচ্ছে।
বর্তমান সময়ে বাংলাদেশে যারা দীর্ঘস্থায়ী এবং সাশ্রয়ী মূল্যে অত্যাধুনিক সুযোগ-সুবিধাসংবলিত বাসস্থানের কথা ভাবছেন, তাঁদের কাছে এডিসন গ্রুপের প্রতিষ্ঠান এডিসন রিয়েল এস্টেট হতে পারে আস্থার এক নাম। এডিসন গ্রুপ বাংলাদেশের দ্রুত বর্ধনশীল প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে অন্যতম। প্রতিষ্ঠানটি প্রযুক্তি, টেলিকমিউনিকেশন, বিদ্যুৎ, রিয়েল এস্টেট, ইলেকট্রনিক, মোবাইল ভ্যাস ও জুতাশিল্পে বিনিয়োগের মাধ্যমে সফলতা পেয়েছে। আর এভাবেই এডিসন গ্রুপ তার পোর্টফোলিওকে বৈচিত্র্যময় করে তুলেছে। এ কারণেই দেশের রিয়েল এস্টেট গ্রাহকদের কাছে শ্রেষ্ঠত্ব ও দক্ষতায় অনন্য হয়ে উঠেছে এডিসন রিয়েল এস্টেট। ২০১৫ সাল থেকেই এডিসন রিয়েল এস্টেট প্রতিটি প্রকল্পে টেকসই জীবনযাপনের উপাদান অন্তর্ভুক্ত করা, অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ও উন্নত সরঞ্জাম সংযোজন করা শুরু করেছে। প্রকল্পগুলোতে বায়োফিলিক নকশা ও স্থাপত্যের ইনফিউশন, সমসাময়িক প্রযুক্তির ব্যবহার এবং গুণগত মান ধরে রাখায় এডিসন রিয়েল এস্টেটের আধুনিক সুযোগ-সুবিধাসংবলিত ভবনে উচ্চতর জীবনযাত্রার নিশ্চয়তা দেবে। এডিসন রিয়েল এস্টেটের প্রকল্পগুলোর সবচেয়ে বড় বিষয় হচ্ছে, এর বিশালতা ও প্রাকৃতিক উপাদানের সংযোজন। এডিসন এপ্রিকাস ও এডিসন আমোর নামের বিলাসবহুল এই ভবন দুটি বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার জাপান স্ট্রিটে অবস্থিত।

প্রতিটি ভবন ২০ কাঠা জমির ওপর নির্মাণ করা হচ্ছে। আর ভবন দুটির সামনে ৫০ ফুট প্রশস্ত সড়ক রয়েছে। এডিসন এপ্রিকাসে রয়েছে মোট ৩৫টি ফ্ল্যাট। এসব ফ্ল্যাট ২৩৩০ থেকে ৩০২০ বর্গফুটের। অন্যদিকে ভবন আমোরেও আছে ৩৫টি ফ্ল্যাট। ২৫৫০ থেকে ২৯০০ বর্গফুটের ফ্ল্যাট পাওয়া যাবে।

দুটি ভবনের প্রতিটি অ্যাপার্টমেন্টের জন্য রয়েছে ডাবল পার্কিং, ইনফিনিটি সুইমিংপুল, গ্র্যান্ড রিসেপশন, মোবিলিটি র‌্যাম্প, দুটি লিফট, গ্রিন ভিউ, জিমনেসিয়াম, ডাবল-হাইট এন্ট্রি, বাচ্চাদের খেলার জায়গা, কমিউনিটি হল, লেকভিউ লবিসহ বিলাসবহুল জীবনযাত্রার সব সুবিধা।

default-image

দৃষ্টিনন্দন ভবন দুটি গুলশান-২ ও বারিধারা ডিপ্লোমেটিক জোন থেকে মাত্র পাঁচ মিনিটের দূরত্বে অবস্থিত। প্রশান্তিতে বাস করার জন্য টেকসই কাঠামোর সঙ্গে নজরকাড়া নকশায় ভবন দুটি নান্দনিকভাবে নকশা করা। এ ছাড়া ভবনের সর্বত্র আলো এবং বাতাস চলাচলের সুবন্দোবস্ত আছে। এসব কারণেই এডিসন রিয়েল এস্টেট অল্প সময়ের মধ্যেই বাংলাদেশের অন্যতম বিশ্বস্ত রিয়েল এস্টেট ব্র্যান্ড হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে কাজ করে যাচ্ছে।

এডিসন এপ্রিকাস
ওরিয়েন্টেশন: দক্ষিণমুখী
সামনের রাস্তা: ৫০ ফুট
জমির পরিমাণ: ২০ কাঠা
অ্যাপার্টমেন্টের আয়তন: ২৩৩০-৩০২০ বর্গফুট
ফ্ল্যাটসংখ্যা: ৩৫
পার্কিংসংখ্যা: ৭০
হস্তান্তরের সময়: জানুয়ারি ২০২৫
ফ্লোরসংখ্যা: বি ২+বি ১+এম+জি+১২
ঠিকানা: প্লট-১১৩৬ সি, জাপান স্ট্রিট, ব্লক আই, বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা, ঢাকা।
এডিসন আমোর
ওরিয়েন্টেশন: দক্ষিণমুখী
সামনের রাস্তা: ৫০ ফুট
জমির পরিমাণ: ২০ কাঠা
অ্যাপার্টমেন্টের আয়তন: ২৫৫০-২৯০০ বর্গফুট
ফ্ল্যাটসংখ্যা: ৩৫
পার্কিংসংখ্যা: ৭০
হস্তান্তরের সময়: জানুয়ারি ২০২৫
ফ্লোরসংখ্যা: বি ২+বি ১+জি+১২
ঠিকানা: প্লট-১১৩৬বি, জাপান স্ট্রিট, ব্লক আই, বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা, ঢাকা।
প্রজেক্টটি ভিসিট অথবা বুকিংয়ের জন্য যোগাযোগ করুন-+৮৮০১৭৫৯৫৯৫৯৭৩, +৮৮০১৭৫৯৫৯৫৯৭৪
এ ছাড়া সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম Facebook-এ যোগাযোগ করতে পারেন: https://www.facebook.com/edisonrealestateltd
আমাদের মেইল করতে পারেন: [email protected]
ওয়েবসাইট ভিজিট করুন: https://edisonrealestatebd.com/

করপোরেট সংবাদ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন