default-image

বাংলাদেশের ১ নম্বর বেভারেজ ব্র্যান্ড সেভেন–আপের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হলেন সাকিব আল হাসান। ক্রিকেট বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার সাকিব এবং চটপটে ও স্মার্ট সেভেন–আপ মাসকট ফাইডো-ডাইডো একসঙ্গে সেভেন–আপের ‘ভাবো ফ্রেশ’ ভাবনাটিকে ছড়িয়ে দেবে গ্রাহকদের মধ্যে।

সেভেন–আপের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে অনুভূতি জানিয়ে সাকিব আল হাসান বলেন, ‘সেভেন–আপের নতুন ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হতে পেরে আমি অত্যন্ত আনন্দিত।

কারণ, আমার সঙ্গে খুব স্বাভাবিকভাবেই ব্র্যান্ডটি মিলে যায়। ব্র্যান্ডের “ভাবো ফ্রেশ” ধারণায় আমি নিজেও বিশ্বাসী। আসলে মাঠের পিচ কিংবা জীবনে যখনই কোনো ঝামেলার সম্মুখীন হই, তখনই চেষ্টা করি ফ্রেশ কোনো বুদ্ধি দিয়ে তার সমাধান বের করার। আর আমি ছোটবেলা থেকেই সেভেন–আপের মাসকট ফাইডোকে দেখে বড় হয়েছি। আমি তার ফুরফুরে ও বুদ্ধিদীপ্ত ব্যক্তিত্বকে পছন্দ করি। তাই সেভেন–আপ ও ফাইডোর সঙ্গে নতুন যাত্রা শুরু করার জন্য আমি আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করছি।’

পেপসিকো বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার দেবাশিস দেব বলেন, ‘সেভেন–আপ এ দেশের অন্যতম বড় এবং সবার প্রিয় বেভারেজ ব্র্যান্ড। এর ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে দেশের সবচেয়ে বড় ক্রিকেট আইকন সাকিব আল হাসানকেই মানায়। সাকিব আল হাসানের মধ্যে আশাবাদী মনোভাব এবং যেকোনো পরিস্থিতিতে মাথা ঠান্ডা রাখার বিশেষ গুণ আছে। তাঁর এই গুণাবলি শুধু যে সেভেন–আপের চিন্তাধারার সঙ্গে মিলে যায় তা নয়, দেশজুড়ে সব বয়সের মানুষের কাছেও তা সমানভাবে গ্রহণযোগ্য। সাকিব আল হাসান এবং আমাদের ব্র্যান্ড মাসকট ফাইডোকে নিয়ে আমরা মজার কিছু মুহূর্ত তৈরি করে, বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে আনন্দ ছড়িয়ে, বাজারে সাড়া তুলতে চাই।’

বিজ্ঞাপন

ট্রান্সকম বেভারেজেস লিমিটেডের সেলস, মার্কেটিং অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন ডিরেক্টর দিপিন্দার সিং তিওয়ানা বলেছেন, ‘সেভেন–আপ দেশের অন্যতম জনপ্রিয় একটি ব্র্যান্ড। আর সাকিব আল হাসানকে সেভেন–আপের অ্যাম্বাসেডর হিসেবে পাওয়া আমাদের জন্য একটি মাইলফলক হয়ে থাকবে। তরুণদের কাছে সাকিব একজন আদর্শ এবং সারা দেশের মানুষের কাছে তাঁর জনপ্রিয়তা আকাশচুম্বী। তাই আমি মনে করি, সেভেন–আপের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে তিনি সবচেয়ে উপযুক্ত। আমরা সারা বছর বিভিন্ন বিজ্ঞাপন মাধ্যম ও গণমাধ্যমে সক্রিয় থেকে সেভেন–আপের সঙ্গে তাঁর এই যাত্রাকে আরও প্রাণবন্ত করে তুলব।’

রিফ্রেশিং ড্রিঙ্ক সেভেন–আপ গ্রাহকদের সব সময়ই বুদ্ধিমান ও আশাবাদী হতে উৎসাহ দেয়। আর এই ভাবনা ক্রিকেটারদের জন্যও জরুরি। সেভেন–আপ ব্র্যান্ডের বিখ্যাত ক্যাম্পেইন ‘ভাবো ফ্রেশ’–এর মূলভাব হলো, জীবনে প্রতিটা ক্ষেত্রে নানা ঝামেলা আসবে, কিন্তু আমাদের সব সময় আশাবাদী থাকতে হবে। ফ্রেশ ভাবে ভাবতে হবে। তবেই আমরা ঝামেলা মিটিয়ে বের হয়ে আসতে পারব বিজয়ী হিসেবে। বিশ্বসেরা ক্রিকেট অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান সেভেন–আপের এই ভাবনাকে সবার মাঝে পৌঁছে দেবেন আর বছরের পুরো সময় সবাইকে নিশ্চিন্ত থেকে, আনন্দে সময় কাটাতে উৎসাহ দিবেন। বিজ্ঞপ্তি

করপোরেট সংবাদ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন