default-image

কোভিড-১৯ পরিস্থিতি মোকাবিলায় অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগ গত সোমবার একটি পরিপত্র জারি করেছে। এতে পরিচালন ও উন্নয়ন উভয় বাজেটের আওতায় খরচ কমানোর কথা বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরের বাকি সময়ে নতুন কোনো পূর্তকাজ (নির্মাণ, স্থাপনা) করা যাবে না বলেও জানানো হয়।

অথচ পরিপত্র জারির মাত্র দুই দিন পর গতকাল বুধবার সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে কয়েকটি পূর্তকাজের প্রস্তাব অনুমোদিত হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

বৈঠকের পর বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘নতুন পূর্তকাজ বন্ধের পরিপত্রটি আমি দেখিনি। অবশ্যই দেখব। আমার অনুমোদন ছাড়া পরিপত্র জারি হতে পারে না। মনে হয় এখানে কোনো ভুল-বোঝাবুঝি আছে।’ এ বিষয়ে অবহিত হতে তাৎক্ষণিকভাবে অর্থমন্ত্রীকে তাঁর একান্ত সচিব মো. ফেরদৌস আলমের খোঁজ করতে দেখা গেছে।

ক্রয় কমিটির বৈঠকে গতকাল ‘নরসিংদী জেলা কারাগার নির্মাণ’ প্রকল্পের ৬৭ কোটি টাকার পূর্তকাজের প্রস্তাব অনুমোদিত হয়েছে। গণপূর্ত অধিদপ্তর এটি বাস্তবায়ন করবে। কাজ পেয়েছে নুরানি কনস্ট্রাকশন। একই অধিদপ্তরের ‘ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস ও হাসপাতাল’ প্রকল্পের ১২৪ কোটি টাকার পূর্তকাজের প্রস্তাব অনুমোদিত হয়। কাজটি পেয়েছে ওয়াহিদ কনস্ট্রাকশন।

বৈঠকে নোয়াখালী জেলার হাতিয়ায় ১৫ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন হেভি ফুয়েল অয়েলভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের পূর্তকাজ অনুমোদন করা হয়। এতে ব্যয় হবে ১ হাজার ৩৯৭ কোটি টাকা।

বিজ্ঞাপন

এ ছাড়া অর্থনৈতিক বিষয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে রাশিয়া ও চীনের টিকা উৎপাদনের প্রস্তাব নীতিগতভাবে অনুমোদিত হয়েছে। অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘প্রথম উৎস (ভারতের সেরাম) থেকে ভ্যাকসিন আনার চেষ্টাও আমরা করে যাচ্ছি। বিকল্প হিসেবে চীন ও রাশিয়ার সঙ্গে আলোচনা চলছে।’

পরে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব শাহিদা আক্তার বলেন, ‘দেশীয় কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের রাশিয়া ও চীনের ভ্যাকসিন উৎপাদনের সক্ষমতা রয়েছে।’

বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশনের (এফবিসিসিআই) ব্যাংকের লাইসেন্স চাওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘আমি জানি না। এ বিষয়ে আমার কাছে প্রস্তাব আসেনি, কেউ দেখাও করেনি। যখন জানব, তখন বলব।’

চলতি অর্থবছরে প্রবৃদ্ধির হার ৫ দশমিক ৫ থেকে ৬ শতাংশের মধ্যে থাকবে বলে প্রাক্কলন করেছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। এ বিষয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের প্রত্যাশা আরও বেশি।’

অর্থনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন