করোনার টিকা আমদানিতে অগ্রিম কর দিতে হবে না। ৫ শতাংশ অগ্রিম কর মওকুফ করা হয়েছে এ জন্য। এটি শুধু কোভিড-১৯ থেকে সুরক্ষা পাওয়ার টিকা নয়, মানবদেহের জন্য আনা সব ধরনের টিকার আমদানি পর্যায়ে অগ্রিম কর দিতে হবে না।

১৬ ফেব্রুয়ারি জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এ-সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। ফলে এখন থেকে সরকারি-বেসরকারি খাতে করোনার টিকা আমদানি করলেও আমদানি পর্যায়ে অগ্রিম কর দিতে হবে না। সাধারণত যেকোনো পণ্য আমদানির ক্ষেত্রে আমদানি পর্যায়ে ৫ শতাংশ অগ্রিম কর দিতে হয়। পরে আমদানিকারক অগ্রিম করের টাকা বার্ষিক আয়কর বিবরণী জমা দেওয়ার সময় মোট করের সঙ্গে সমন্বয় করতে পারেন। এনবিআরের নতুন প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, ১৯৮৪ সালের আয়কর অধ্যাদেশের অগ্রিম কর মওকুফের তালিকায় মানবদেহের টিকা অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

এদিকে জীবন রক্ষাকারী ওষুধ হিসেবে এমনিতে টিকা আনতে ভ্যাট দিতে হয় না। এমনকি আমদানি শুল্কও মওকুফ করা আছে। এর ফলে করোনার টিকা মূলত শুল্ক-কর ছাড়াই দেশে আনা যাবে।

বিজ্ঞাপন

এদিকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার সহায়ক হিসেবে পিপিই, মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, ফেসশিল্ডসহ অন্যান্য ব্যক্তিগত সুরক্ষাসামগ্রী আমদানিতেও শুল্ক-কর নেই। এমনকি এসব সুরক্ষাসামগ্রী বানাতে কাঁচামাল আমদানিতেও শুল্ক নেই।

গত জানুয়ারি মাসে প্রথম ভারত থেকে কোভিশিল্ড টিকা আমদানি শুরু হয়। এ পর্যন্ত ৭০ লাখ টিকা দেশে এসেছে। এর মধ্যে ২০ লাখ টিকা ভারতের কাছ থেকে উপহার হিসেবে পাওয়া গেছে। ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার এই টিকা বানাচ্ছে। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত ৩ কোটি টিকা আনার বিষয়ে চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে বেসরকারি খাতের মাধ্যমে টিকা আমদানির বিষয়টি আলোচনায় আছে।

অর্থনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন