এর আগের বিনিয়োগটি দেশব্যাপী সেবা সম্প্রসারণের জন্য ইতিবাচক ভূমিকা রেখেছিল বলে উল্লেখ করেন রাহাত আহমেদ। তিনি বলেন, ‘ই–কমার্স প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ব্যবসায়িক কাঠামো তৈরি হয়েছে। এখন আমাদের লক্ষ্য বিজনেস টু বিজনেসের (বিটুবি) জন্য ডিজিটাল সেবা কাঠামো নির্মাণ করা, যার মাধ্যমে ঘরে বসেই যেকোনো বিক্রেতা তাঁর পণ্য পাঠাতে পারবেন। আর ক্রেতাও ঘরে বসেই তাঁর পছন্দের পণ্যটি পাবেন।’

পেপারফ্লাইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) শাহরিয়ার হাসান বলেন, ‘শুরু থেকেই সারা দেশে ই-কমার্স লজিস্টিকস সলিউশন প্রদানে আমরা আন্তরিক। সে লক্ষ্যে গ্রামাঞ্চলেও পণ্য পৌঁছে দিচ্ছে পেপারফ্লাই। গত বছর থেকে আমরা স্থানীয় কুরিয়ার পার্সেল শিল্পে বিটুবি সেবা শুরু করেছি। এতে বেশ ভালো সাড়াও পাচ্ছি।’ শাহরিয়ার হাসান আরও বলেন, ‘ভারতীয় প্রতিষ্ঠানের নতুন বিনিয়োগের মাধ্যমে বাংলাদেশের লজিস্টিকস খাতে সম্ভাবনার বিষয়টি আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেল।’

এদিকে বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান ইকম এক্সপ্রেসের সহপ্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) টি এ কৃষ্ণান বলেন, ‘এই বিনিয়োগের মাধ্যমে ক্রমবর্ধমান ডিজিটাল কমার্সের সলিউশনে পেপারফ্লাইয়ের বিটুবি সেবা আগামী দিনে আরও বাড়বে। এই বিনিয়োগ কোম্পানিটির পরিসর বাড়াবে। আমরাও যার অংশীদার হতে আগ্রহী।’

অর্থনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন