বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ ব্যাংক গতকাল মঙ্গলবার এক প্রজ্ঞাপনে এই তহবিল গঠনের বিষয়টি ব্যাংকগুলোকে জানায়। এতে বলা হয়েছে, ব্যাংকগুলো ১ শতাংশ সুদে এই তহবিল থেকে পুনঃ অর্থায়ন নিয়ে সরাসরি বা নিজস্ব নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ঋণ দিতে পারবে। যাঁরা ইতিমধ্যে কৃষিঋণ নিয়েছেন, তাঁদের অতিরিক্ত ২০ শতাংশ ঋণ দেওয়া যাবে। অর্থাৎ কেউ ১ লাখ টাকা ঋণ নিলে তাঁকে নতুন করে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত ঋণ দেওয়া যাবে। এ ক্ষেত্রে একজন গ্রাহককে ১০ কোটি টাকা পর্যন্ত দেওয়া যাবে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলছে, গাভি পালন, গরু মোটাতাজাকরণ খাতে ব্যক্তিগত গ্যারান্টির বিপরীতে ঋণ দেওয়া যাবে। শস্য ও ফসল ঋণ ব্যতীত অন্যান্য খাতে ন্যূনতম/সহায়ক জামানতের বিষয়ে ব্যাংক সিদ্ধান্ত নিতে পারবে। এই তহবিল থেকে ঋণ নিয়ে কোনোভাবেই পুরোনো ঋণ শোধ করা যাবে না। এই ঋণ পরিশোধে সর্বোচ্চ ১৮ মাস সময় পাবেন কৃষকেরা।

অর্থনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন