default-image

রপ্তানিমুখী তৈরি পোশাকশিল্পের ক্রেতা ও সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সংযোগ ঘটাবে মার্চেন্ট বে। অনলাইনভিত্তিক এই ই-বিটুবি প্ল্যাটফর্ম প্রাথমিকভাবে সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের ডিজিটাল প্রোফাইল প্রস্তুত করে তা যাচাই–বাছাই করে বৈশ্বিক ক্রেতাদের কাছে পৌঁছে দেবে। এ ছাড়া পোশাকের ক্রেতাদের সঙ্গে সরবরাহকারীদের দ্রুত সংযোগ স্থাপন, স্বচ্ছতার সঙ্গে আপডেট প্রদান, ক্রয়াদেশ প্রক্রিয়া প্রসেসিং ও উৎপাদন তদারকি করবে মার্চেন্ট বে।
মার্চেন্ট বে নামের এই প্ল্যাটফর্মটি প্রতিষ্ঠা করেছে সায়েম গ্রুপ। বর্তমানে মার্চেন্ট বের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে এক হাজারের বেশি পোশাক সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান। ২২টি শ্রেণিতে মোট ৫০০-এর বেশি পণ্য অন্তর্ভুক্ত আছে। সায়েম গ্রুপ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার গত শনিবার অনলাইনে মার্চেন্ট বের উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানে আরও অংশ নেন তৈরি পোশাকশিল্পের মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর সভাপতি রুবানা হক, ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, সায়েম গ্রুপের প্রেসিডেন্ট মো. মনির হোসেন, মার্চেন্ট বের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবরার হোসেন সায়েম।

বিজ্ঞাপন
মার্চেন্ট বে একটি সময়োপযোগী উদ্যোগ। যেহেতু করোনার কারণে ক্রেতাদের আচার-আচরণে পরিবর্তন হচ্ছে, সেহেতু এই প্ল্যাটফর্ম পোশাকশিল্পের সবার কাজে দেবে বলে আমার বিশ্বাস।
রুবানা হক, সভাপতি, বিজিএমইএ

ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘আশা করছি, এই প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে আমাদের দেশের ব্যবসায়ীরা বিদেশি ক্রেতাদের সঙ্গে সহজে যোগাযোগের মাধ্যমে পণ্য রপ্তানিতে আরও ভূমিকা রাখতে পারবেন।’
বিজিএমইএর সভাপতি রুবানা হক বলেন, ‘মার্চেন্ট বে একটি সময়োপযোগী উদ্যোগ। যেহেতু করোনার কারণে ক্রেতাদের আচার-আচরণে পরিবর্তন হচ্ছে, সেহেতু এই প্ল্যাটফর্ম পোশাকশিল্পের সবার কাজে দেবে বলে আমার বিশ্বাস।’

মন্তব্য পড়ুন 0