বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তা ছাড়া যেসব পাসপোর্টধারী যাত্রী দেশে ফেরত আসবেন, তাঁদের এ স্থলবন্দরে নিজ খরচে ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।
বুড়িমারী স্থলবন্দর সূত্রে জানা গেছে, আমদানি-রপ্তানিকারক সমিতি ও সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের যৌথ সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, ঈদ উপলক্ষে ১৯ থেকে ২৪ জুলাই পর্যন্ত আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ রাখা হবে।

বুড়িমারী স্থলবন্দর আমদানি-রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও পাটগ্রাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রুহুল আমীন বলেন, ‘ঈদ উপলক্ষে বুড়িমারী স্থলবন্দর ও ভারতের চ্যাংরাবান্দা শুল্ক স্টেশন ও ভুটানের আমদানি-রপ্তানিকারক সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে আলোচনা করেই ছয় দিন কার্যক্রম বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ২৫ জুলাই পুনরায় কার্যক্রম শুরু হবে।

বুড়িমারী স্থলবন্দর পুলিশের অভিবাসন কর্মকর্তা (এসআই) আনোয়ার হোসেন বলেন, পাসপোর্টধারী যাত্রী চলাচল অব্যাহত থাকবে। তবে করোনাকালে উভয় দেশে হাইকমিশনের অনুমতি বা এনওসি ও করোনা নেগেটিভ সনদ নিয়ে পাসপোর্টধারী যাত্রী পারাপার হতে পারবেন। তবে যাঁরা ফেরত আসবেন, তাঁদের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

বুড়িমারী স্থলবন্দর কাস্টমস সহকারী কমিশনার (এসি) কেফায়েত উল্যাহ মজুমদার স্থলবন্দর ছয় দিন বন্ধ ঘোষণার বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

শিল্প থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন