default-image

তৈরি পোশাকশিল্পের মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর নতুন সভাপতি ফারুক হাসান ও সাত সহসভাপতি কাল মঙ্গলবার দায়িত্ব নেবেন। লকডাউনের কারণে এক সপ্তাহ আগেই সংগঠনের নতুন পরিচালনা পর্ষদ দায়িত্ব নিতে যাচ্ছে।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বিজিএমইএর সভাপতি রুবানা হক বর্তমানে দেশের বাইরে রয়েছেন। ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোহাম্মদ আবদুস সালামের সভাপতিত্বে আজ সোমবার বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় লকডাউনের কারণে আগামীকাল মঙ্গলবার সংগঠনের গুলশান কার্যালয়ে অনাড়ম্বর একটি অনুষ্ঠান করে ফারুক হাসানের নেতৃত্বাধীন পর্ষদের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তরের সিদ্ধান্ত হয়। যদিও পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী, ২০ এপ্রিল নতুন পর্ষদের দায়িত্ব নেওয়ার কথা ছিল।
বিষয়টি নিশ্চিত করে বিজিএমইএর সহসভাপতি ফয়সাল সামাদ প্রথম আলোকে বলেন, সাধারণত বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) করার পর নতুন পর্ষদের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তরের রেওয়াজ থাকলেও বর্তমান পরিস্থিতির কারণে সেটি হচ্ছে না। কাল নতুন পর্ষদের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তরের প্রস্তুতি রয়েছে। তিনি বলেন, বোর্ড সভা শেষে দায়িত্ব হস্তান্তরের জন্য আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করতে নির্বাচন বোর্ডকে জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
আজ সোমবার নির্বাচন বোর্ড সভাপতি পদে জায়ান্ট গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফারুক হাসানের মনোনয়নকে বৈধ ঘোষণা করে।

এদিকে আজ সোমবার নির্বাচন বোর্ড সভাপতি পদে জায়ান্ট গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফারুক হাসানের মনোনয়নকে বৈধ ঘোষণা করে। এ ছাড়া প্রথম সহসভাপতি পদে ওয়েল গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান ওয়েল ডিজাইনারস লিমিটেডের পরিচালক সৈয়দ নজরুল ইসলাম, জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি পদে সিহা ডিজাইনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এস এম মান্নান, সহসভাপতি পদে ক্ল্যাসিক ফ্যাশন কনসেপ্টের এমডি মো. শহীদউল্লাহ আজিম, ডিজাইনটেক্স নিটওয়্যারের এমডি খন্দকার রফিকুল ইসলাম, মিসামী গার্মেন্টসের পরিচালক মিরান আলী, সাদমা ফ্যাশন ওয়্যার এমডি মো. নাছির উদ্দিন এবং এইচকেসি অ্যাপারেল লিমিটেডের এমডি রকিবুল আলম চৌধুরীর মনোনয়নকেও বৈধ ঘোষণা করা হয়।
৪ এপ্রিলের বিজিএমইএর ২০২১-২৩ মেয়াদের পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচনে ফারুক হাসানের নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত পরিষদ ঢাকা ও চট্টগ্রামের ৩৫ পরিচালক পদের মধ্যে ২৪টিতে বিজয়ী হয়। আর এ বি এম সামছুদ্দিনের নেতৃত্বাধীন ফোরাম ১১ পরিচালক পদে বিজয়ী হয়েছে।

নির্বাচিত ৩৫ পরিচালকদের মধ্যে থেকে সভাপতি ও সাতজন সহসভাপতি পদে নির্বাচনের জন্য গতকাল রোববার মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ছিল। শেষ দিনে সভাপতি ও সহসভাপতি মিলিয়ে ৮ পদের বিপরীতে ৮ জনই মনোনয়ন দাখিল করেন।

নির্বাচনে সর্বাধিক ১ হাজার ২০৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন ফারুক হাসান। তবে ফোরামের দলনেতা এ বি এম সামছুদ্দিন জিততে পারেননি। তিনি ভোট পেয়েছেন ৯০৪টি। আর ৯টি ভোট পেলেই তিনি পরিচালক পদে বিজয়ী হতেন। দলনেতা হারলেও ফোরামের হয়ে নির্বাচন করা বিজিএমইএর বর্তমান সভাপতি রুবানা হক দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১ হাজার ১৫৭ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। তাঁর ছেলে নাভিদুল হক ৯৪৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। এতে প্রথমবারের মতো বিজিএমইএর পর্ষদে আসছেন মা-ছেলে।
নির্বাচিত ৩৫ পরিচালকদের মধ্যে থেকে সভাপতি ও সাতজন সহসভাপতি পদে নির্বাচনের জন্য গতকাল রোববার মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ছিল। শেষ দিনে সভাপতি ও সহসভাপতি মিলিয়ে ৮ পদের বিপরীতে ৮ জনই মনোনয়ন দাখিল করেন। ফলে সবারই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার বিষয়টি এখন আনুষ্ঠানিকতা মাত্র।
জানতে চাইলে নবনির্বাচিত সহসভাপতি মো. শহীদউল্লাহ আজিম প্রথম আলোকে বলেন, ‘ফারুক হাসানের নেতৃত্বাধীন নতুন পর্ষদ কাল মঙ্গলবার দুপুরে দায়িত্ব নেবে। দায়িত্ব নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই আমরা কাজ শুরু করব।’ তিনি বলেন, নতুন পর্ষদ দায়িত্ব নেওয়ার পর সুবিধাজনক সময়ে এজিএম হবে।

বিজ্ঞাপন
শিল্প থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন