প্রথম আলো প্রতিবারই মৌসুমি ব্যবসায়ীরা চামড়া সংগ্রহ করেন। এ নিয়ে অনেকে অভিযোগ করেন, তাঁরা দর ঠিকমতো পান না। এ বিষয়ে আপনার বক্তব্য কী?

মুসলিম উদ্দিন মৌসুমি ব্যবসায়ীরা প্রতিবছরই চামড়া কেনেন। এবারও কিনবেন। তাঁদের উদ্দেশে বলব, কাঁচা চামড়া ও লবণযুক্ত চামড়ার দাম এক না করতে। সরকার যে দর নির্ধারণ করে দিয়েছে, তা লবণযুক্ত চামড়ার জন্য। কাঁচা চামড়ার জন্য নয়। তাই সেভাবে যাতে কেনেন। বড় চামড়া, অর্থাৎ ২৫ বর্গফুটের চামড়া ৬০০ টাকা। মাঝারি আকারের চামড়া ৪০০ টাকার মতো হতে পারে।

প্রথম আলো চামড়া নষ্ট না করার জন্য কোনো কিছু বলবেন?

মুসলিম উদ্দিন গরম পড়ছে। তাই চামড়া দ্রুত নষ্ট হয়ে যাবে। দূরদূরান্তের চামড়া সংগ্রহকারীদের বলব, স্থানীয়ভাবে লবণ দিয়ে মজুত করুন। আর যাঁরা পারবেন না, তাঁরা উপজেলা থেকে চামড়া নিয়ে যাতে দ্রুত চলে আসেন। নগরে আমরা চামড়া সংগ্রহ করব।

শিল্প থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন