default-image

দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্পগ্রুপ প্রাণ নতুন একটি কারখানা উদ্বোধন করেছে। এতে বিশ্বের অন্যতম এফএমসিজি তথা নিত্যব্যবহার্য পণ্য প্রস্তুতকারক কোম্পানি প্রক্টর অ্যান্ড গ্যাম্বেলের (পিঅ্যান্ডজি) জিলেট গার্ড রেজরসহ বিভিন্ন পণ্য উৎপাদন হবে। গত রোববার প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান ভার্চ্যুয়াল মাধ্যমে কারখানাটির উদ্বোধন করেন।

প্রাণ গ্রুপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান অ্যাডভান্সড পারসোনাল কেয়ার লিমিটেড (এপিসিএল) চুক্তি ভিত্তিতে দেশে প্রক্টর অ্যান্ড গ্যাম্বেলের পণ্য উৎপাদন করবে। কারখানাটি হবিগঞ্জ জেলার শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার অলিপুরের হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কে অবস্থিত। প্রাণ গতকাল সোমবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সালমান এফ রহমান বলেন, ‘আমি অত্যন্ত আনন্দিত যে প্রক্টর ও গ্যাম্বেল বাংলাদেশে বিনিয়োগ করেছে। এটি সারা পৃথিবীর জন্য একটি ভালো বার্তা। কারণ, প্রক্টর অ্যান্ড গ্যাম্বেল খ্যাতি, আকার ও অবস্থান বিবেচনায় বিশ্বের একটি সফল কোম্পানি।’ তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ সরকারের অন্যতম নীতি হচ্ছে বেসরকারি খাতকে উন্নত করা।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার, বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বেজা) নির্বাহী চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম, প্রক্টর অ্যান্ড গ্যাম্বেল দক্ষিণ এশিয়ার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মধুসূদন গোপালান, প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের চেয়ারম্যান ও নির্বাহী কর্মকর্তা আহসান খান চৌধুরী

রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের মধ্যকার অর্থনৈতিক সহযোগিতার ক্ষেত্রে আজকের দিনটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, যুক্তরাষ্ট্রের অন্যান্য কোম্পানির মতো প্রক্টর ও গ্যাম্বেল পণ্য উৎপাদনের ক্ষেত্র হিসেবে বাংলাদেশে যে সম্ভাবনা আছে, সেটি কাজে লাগাতে যুক্ত হলো।

বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, এ উদ্যোগের ফলে বাংলাদেশের তরুণ জনগোষ্ঠী জ্ঞানভিত্তিক পরিবেশে নিজেদের পেশাদার হিসেবে গড়ে তুলতে সক্ষম হবে।

বিজ্ঞাপন

পিঅ্যান্ডজির দক্ষিণ এশিয়ার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মধুসূদন গোপালান বলেন, ‘১৯৯৪ সাল থেকে আমাদের পণ্য বাংলাদেশের ভোক্তাদের জীবনমানের উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে। বাংলাদেশে প্রাণের সঙ্গে চুক্তিভিত্তিক অংশীদারত্বের ভিত্তিতে উৎপাদনের ফলে আমরা আরও ভালোভাবে আমাদের ভোক্তাদের সেবা দিতে পারব। এর মাধ্যমে বাংলাদেশে আমাদের বিনিয়োগের যে প্রতিশ্রুতি, তা আরও জোরদার হবে, যার ফলে কর্মসংস্থান ও অংশীদারত্বসহ নানা সুযোগ সৃষ্টি হবে এবং তা বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে অবদান রাখবে।’

প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের চেয়ারম্যান ও নির্বাহী কর্মকর্তা আহসান খান চৌধুরী বলেন, ‘প্রক্টর অ্যান্ড গ্যাম্বেলের পণ্য উৎপাদনে অংশীদার হতে পেরে আমরা গর্বিত।’

শিল্প থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন