default-image

কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই তৈরি পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচন হচ্ছে। প্রথম ৬ ঘণ্টায় ঢাকা ও চট্টগ্রামের ২ হাজার ৩১৩ ভোটারের মধ্যে ৫৬ দশমিক ৫৯ শতাংশ, অর্থাৎ ১ হাজার ৩০৯ জন ভোট দিয়েছেন। সন্ধ্যা সাতটা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলবে।

দীর্ঘ আট বছর পর বিজিএমইএর নেতৃত্ব নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ভোট হচ্ছে। ঢাকা ও চট্টগ্রামে সংগঠনের ৩৫ পরিচালক পদের জন্য লড়ছেন নির্বাচনকেন্দ্রিক জোট সম্মিলিত পরিষদ ও ফোরামের ৭০ প্রার্থী। স্বাধীনতা পরিষদ নামের আরেকটি জোট সম্মিলিত পরিষদের সঙ্গে যৌথভাবে নির্বাচন করছে। সম্মিলিত পরিষদের দলনেতা ফারুক হাসান। ফোরামের দলনেতা এ বি এম সামছুদ্দিন।

বিজ্ঞাপন
default-image

ঢাকার র‌্যাডিসন হোটেলে আজ রোববার সকাল নয়টা থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। হোটেলের ভেতরে স্বাস্থ্যবিধি কিছুটা রক্ষা করা গেলেও বাইরে সকাল থেকেই সমর্থকদের প্রচণ্ড ভিড়। তাঁদের অধিকাংশের গলায় সম্মিলিত পরিষদের কার্ড ঝোলানো। বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ জানিয়েছেন ফোরামের নেতারা। তাঁরা বলছেন, নির্বাচন বোর্ডের নির্দেশনা মেনে তাঁরা সমর্থকদের র‌্যাডিসন হোটেলে আসতে নিষেধ করেছেন। তারপরও ভোটের সামগ্রিক পরিবেশ নিয়ে বিজিএমইএর সাধারণ সদস্যরা সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

নির্বাচনের প্রথম ১ ঘণ্টায় ঢাকায় ১৭৩টি ভোট পড়ে। তারপর ঘণ্টাখানেক ভোটার উপস্থিতি কিছুটা কম ছিল। তারপর আবার বাড়তে থাকে। বেলা তিনটা পর্যন্ত ঢাকার কেন্দ্রে ৯৮৪ ভোট পড়েছে। চট্টগ্রামে ভোট পড়েছে ৩২৫টি, এমনটাই জানায় নির্বাচন কমিশন।

ভোট অত্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে হচ্ছে। নির্বাচন কমিশনের সদস্যরা খুবই দায়িত্বশীল আচরণ করছেন। শেষ পর্যন্ত অধিকাংশ ভোটার ভোট দিতে এলে আমাদের প্যানেলে বিজয়ী হবে।
এ বি এম সামছুদ্দিন , দলনেতা, ফোরাম

আজকের ভোট গ্রহণ শেষে রাতেই অনানুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল ঘোষণা করবে নির্বাচন বোর্ড। ভোট গ্রহণ শেষে সফটওয়্যারের মাধ্যমে ভোট গণনা করা হবে। আর নির্বাচিত ৩৫ পরিচালকেরা ১৬ এপ্রিল বিজিএমইএর সভাপতি ও ৭ জন সহসভাপতি নির্বাচিত করবেন। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী দুই বছরের জন্য নতুন কমিটি দায়িত্ব নেবে ২০ এপ্রিল।

জানতে চাইলে ফোরামের দলনেতা এ বি এম সামছুদ্দিন বেলা ১১টার দিকে প্রথম আলোকে বলেন, ভোট অত্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে হচ্ছে। নির্বাচন কমিশনের সদস্যরা খুবই দায়িত্বশীল আচরণ করছেন। শেষ পর্যন্ত অধিকাংশ ভোটার ভোট দিতে এলে তাঁদের প্যানেলে বিজয়ী হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

বিজ্ঞাপন
ফোরাম ও সম্মিলিত পরিষদের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ পরিবেশে ভোট হচ্ছে। আমি আশাবাদী, সম্মানিত সদস্যরা ভোটের মাধ্যমে সম্মিলিত পরিষদের অভিজ্ঞতা ও অতীত পারফরম্যান্স বিবেচনা করে বিজিএমইএর আগামী পর্ষদের দায়িত্ব আমাদের হাতে দেবেন।
ফারুক হাসান, দলনেতা, সম্মিলিত পরিষদ

সম্মিলিত পরিষদের দলনেতা ফারুক হাসান প্রথম আলোকে বলেন, ‘ফোরাম ও সম্মিলিত পরিষদের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ পরিবেশে ভোট হচ্ছে। আমি আশাবাদী, সম্মানিত সদস্যরা ভোটের মাধ্যমে সম্মিলিত পরিষদের অভিজ্ঞতা ও অতীত পারফরম্যান্স বিবেচনা করে বিজিএমইএর আগামী পর্ষদের দায়িত্ব আমাদের হাতে দেবেন।’

সর্বশেষ ২০১৩ সালে সাধারণ সদস্যদের ভোটে বিজিএমইএর পরিচালনা পর্ষদ নির্বাচিত হয়েছিল। তারপর নেতৃত্ব নির্বাচনে সম্মিলিত পরিষদ ও ফোরাম দুই মেয়াদের জন্য সমঝোতা করে। সেই সমঝোতার প্রথম দফায়, অর্থাৎ ২০১৫ সালের ২২ সেপ্টেম্বরে সম্মিলিত পরিষদের সিদ্দিকুর রহমানের নেতৃত্বে কমিটি হয়। সেই কমিটি নানা অজুহাত দেখিয়ে ৪৩ মাস দায়িত্ব পালন করে। পরের মেয়াদে সমঝোতার কমিটি করার উদ্যোগ নেয় দুই জোট। তবে বাগড়া দেয় স্বাধীনতা পরিষদ। নির্বাচনে তাদের নিবৃত্ত করতে নানামুখী চেষ্টাও হয়। তবে শেষ পর্যন্ত স্বাধীনতা খণ্ডিত প্যানেলে প্রার্থী দেয়। সে কারণে ঢাকায় নিয়ম রক্ষার ভোট হয়।

শিল্প থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন