default-image

দেশে প্রথমবারের মতো দুটি কেটিএম মোটরসাইকেল উন্মোচন করল কেটিএম বাংলাদেশ-রানার অটোমোবাইলস। আজ সোমবার ময়মনসিংহের ভালুকায় অবস্থিত রানার অটোমোবাইলস লিমিটেডের কারখানায় কেটিএম ১২৫ ডিউক এবং কেটিএম আরসি ১২৫ মডেলের দুটি মোটরসাইকেল উন্মোচন করা হয়।

মোটরসাইকেল প্রেমীদের কাছে ব্যাপক জনপ্রিয় অস্ট্রিয়ান মোটরসাইকেল ব্র্যান্ড কেটিএম। কেটিএমের সিগনেচার ‘ডিউক অ্যাটিটিউড’ যুক্ত কেটিএম ১২৫ ডিউক বিশ্বজুড়ে ১২৫ সিসি বিভাগে অন্যতম জনপ্রিয় মোটরসাইকেল। ডিউকের বিশেষত্ব হলো এর গতি। কেটিএম ১২৫ ডিউকের রয়েছে লিকুইড-কুলড, ফুয়েল ইঞ্জেক্টেড ইঞ্জিন যা ৯২৫০ আরপিএমে দেয় ১৪.৫ এইচপি ক্ষমতা এবং ৮০০০ আরপিএমে দেয় ১২ নিউটন মিটার। এর অ্যালুমিনিয়াম সিলিন্ডারের ভেতরের দেয়ালে নিকাসিল কোটিং দেওয়া হয়েছে। নাইট রাইডারদের জন্য ডিউকের চমৎকার এলইডি হেডলাইটের সাহায্যে সামনের রাস্তাকে আলোকিত করে।

বিজ্ঞাপন

অন্যদিকে কেটিএম আরসি ১২৫ মোটোজিপি চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নেওয়া কেটিএম ফ্যাক্টরি রেসিং টিমের আরসি ১৬ দ্বারা অনুপ্রাণিত। এতে আরও রয়েছে শীর্ষমানের এবিএস সিস্টেম, শক্তিশালী ফেয়ারিং এবং রোমাঞ্চকর লিন ফরোয়ার্ড স্টাইলের দুর্দান্ত অ্যারোডাইনামিক স্টাইল, যা যেকোনো রাস্তা কিংবা ট্র্যাকে কেটিএমপ্রেমীদের করবে অন্যদের থেকে আলাদা।

রানার অটোমোবাইলস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী রিয়াজুল চৌধুরী বলেন, ‘এই আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বাংলাদেশে কেটিএম ডিউক এবং কেটিএম আরসির যাত্রা শুরু করতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। রানার অটোমোবাইলস লিমিটেড সর্বদা আমাদের গ্রাহকদের জন্য সর্বোত্তম অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করার উদ্দেশ্যে নতুন পণ্য এবং উদ্ভাবন আনতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে। বাইক বাজারে ছাড়ার ঘোষণার পর থেকে কেটিএমের জন্য বাইকপ্রেমীদের উচ্ছ্বাস এবং আগ্রহ দেখে আমরা অভিভূত।’

রানার অটোমোবাইলস লিমিটেডের পরিচালক আমিদ সাকিফ খান বলেন, ‘বিগত কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশের মোটরসাইকেলের বাজার সমৃদ্ধ হচ্ছে। কেটিএম এই উঠতি বাজারে নিজেদের উপস্থিতি জানান দিতে পেরে খুশি এবং আগামী দিনগুলিতে মানের নিশ্চয়তা এবং গ্রাহকসেবার অনুকরণীয় প্রদর্শন করার জন্য আন্তরিকভাবে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’

অস্ট্রিয়ান মোটরসাইকেল প্রতিষ্ঠান কেটিএমের যাত্রা শুরু হয় ১৯৩৪ সালে। কয়েক দশক ধরে মোটরসাইকেল ক্রীড়া শিল্পের অন্যতম প্রধান নাম, কেটিএম তাদের অত্যাধুনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, ডিজাইন এবং প্রযুক্তির জন্য স্বীকৃত, যাদের বর্তমানে বিশ্বব্যাপী প্রায় তিন হাজার কর্মচারী রয়েছে এবং গ্লোবালি কেটিএম ইউএসএ, কেটিএম ইউকে, কেটিএম ভারত, কেটিএম রাশিয়া, কেটিএম আফ্রিকা এবং কেটিএম এশিয়া নামে কাজ করে যাচ্ছে। পিয়েরের মবিলিটি এজি এবং বাজাজ অটো এই প্রতিষ্ঠানের মূল শেয়ারহোল্ডার।

বিজ্ঞাপন
শিল্প থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন