default-image

মিথ্যা ঘোষণা দিয়ে পণ্য আমদানি কমে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি বলেন, শুল্ক ব্যবস্থাপনা আধুনিক হওয়ায় মিথ্যা ঘোষণা দিয়ে পণ্য আমদানি-রপ্তানি করার প্রবণতা এখন কমে এসেছে। তবে শুল্ক পদ্ধতির আরও আধুনিকায়নে বন্দরগুলোতে স্ক্যানার মেশিনের সংখ্যা বাড়ানো জরুরি।

গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় রাজস্ব ভবনের সভাকক্ষে ভার্চ্যুয়াল প্ল্যাটফর্মে আয়োজিত আন্তর্জাতিক কাস্টমস দিবসের সেমিনার ও ওয়ার্ল্ড কাস্টমস অর্গানাইজেশন (ডব্লিউসিও) সার্টিফিকেট অব মেরিট প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। এতে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন এনবিআরের সদস্য (কাস্টমস নীতি ও আইসিটি) সৈয়দ গোলাম কিবরিয়া। খবর বাসসের।

অর্থমন্ত্রী বলেন, আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য অধিক নিরাপদ করা ও ব্যবসা সহজীকরণে বন্দরের শুল্ক ব্যবস্থার পুরোপুরি অটোমেশন হওয়া জরুরি। তাহলে মিথ্যা ঘোষণা দিয়ে কেউ পণ্য আমদানি-রপ্তানির সুযোগ পাবে না। কাগজপত্র যাচাই করাও সহজ হবে। তিনি বলেন, এনবিআর আগের চেয়ে অনেক বেশি ব্যবসাবান্ধব। তবে করোনা মোকাবিলায় সেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে রাজস্ব কর্মকর্তাদের আরও আন্তরিক হওয়ার নির্দেশ দেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

মুস্তফা কামাল বলেন, মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) হিসাবে কর জিডিপির অনুপাত কত, তার সঠিক হিসাব নির্ণয় করতে এনবিআর সরকারি প্রকল্পগুলোতে কী পরিমাণ কর, ভ্যাট বা শুল্ক অব্যাহতি দিচ্ছে, সেটি জানা দরকার। সরকারি প্রকল্পে অব্যাহতি দেওয়া রাজস্বের পরিমাণ রেকর্ড থাকলে কত টাকার কর ছাড় দেওয়া হলো, সেটা জানা থাকবে। আবার অব্যাহতি না দিলে মোট রাজস্বের পরিমাণ কত দাঁড়াত, তাও জানা যাবে।

ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম বলেন, যাঁরা স্থানীয়ভাবে বৈশ্বিক বড় বড় কোম্পানির পরিবেশকের দায়িত্ব পালন করছেন, তাঁদের আর্থিক লেনদেনের সব কাগজপত্র চালান ভিত্তিতে হলে অনেক কিছুই আনুষ্ঠানিক অর্থনীতিতে চলে আসবে। এতে রাজস্বও বাড়বে।

এনবিআরের চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম বলেন, আগামী ১ জুলাই থেকে দুই লাখ টাকার ওপরে সব ধরনের কর ইলেকট্রনিক পেমেন্ট বা ই-পেমেন্ট ছাড়া নেওয়া হবে না। রাজস্ব বোর্ডে স্বচ্ছতা নিশ্চিতে ই-পেমেন্টের রূপকল্প প্রণয়ন করা হয়েছে। ১ এপ্রিল থেকে কমলাপুরের আইসিডি কাস্টমস হাউসে এই নিয়ম বাধ্যতামূলক করা হবে। তিনি আরও বলেন, ১৩টি স্ক্যানার কেনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সেগুলো এলে পণ্য সরবরাহ কার্যক্রম আরও দ্রুত হবে।

অনুষ্ঠানে করোনাভাইরাসে মারা যাওয়া সাত রাজস্ব কর্মকর্তা-কর্মচারীকে মরণোত্তর ডব্লিউসিও সার্টিফিকেট অব মেরিট প্রদান করা হয়। এ ছাড়া আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্যে বিশেষ অবদান রাখায় এনবিআরের ১০ কর্মকর্তা, ঢাকা ও চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস এবং বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনকে (বিএমএ) ডব্লিউসিও সার্টিফিকেট অব মেরিট প্রদান করা হয়।

শিল্প থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন