বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশে নিযুক্ত ইতালির রাষ্ট্রদূত এনরিকো নুনজিয়াতার সঙ্গে বৈঠক শেষে এসব তথ্য জানান বিসিক চেয়ারম্যান মোস্তাক হাসান। গতকাল রোববার ঢাকার তেজগাঁওয়ে বিসিক কার্যালয়ে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এরপর মোস্তাক হাসান সাংবাদিকদের বলেন, ‘সাভার চামড়াশিল্প নগরে কঠিন বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে আমাদের যুদ্ধ করতে হচ্ছে। চীনা ঠিকাদার এটি করার কথা ছিল। কিন্তু তারা ব্যর্থ হয়েছে।’
মোস্তাক হাসান বলেন, ‘সাভার চামড়াশিল্প নগরের কঠিন বর্জ্য ব্যবস্থাপনা করা বিসিকের একার পক্ষে সম্ভব নয়। এ বিষয়ে আমাদের কাছে ইতালির একটি প্রস্তাব এসেছে। তারা বাংলাদেশের একটি কোম্পানিকে সঙ্গে নিয়ে কাজটি করতে চায়। সাভার চামড়াশিল্প নগরের সব কঠিন বর্জ্যকে পরিশোধন করবে। এরপর তা দিয়ে সার বানিয়ে বিদেশে বা ইউরোপে নিয়ে যাবে।’

বিসিক চেয়ারম্যান আরও বলেন, ‘তারা যাতে পুরো বর্জ্য পায়, সে নিশ্চয়তা চায়। যেটা নিয়ে আমাদের ঘুম হয় না। অথচ তারা সেটি পরিশোধন করে সার বানাতে চায়। এ প্রস্তাবে আমরা রাজি হয়েছি।’

সাভারের চামড়াশিল্প নগরে ট্যানারিগুলোর উৎপাদিত চামড়ার উচ্ছিষ্ট, ঝিল্লিসহ বিভিন্ন কঠিন বর্জ্য এখন সিইটিপির পাশেই রাখা হচ্ছে। এতে পরিবেশ মারাত্মকভাবে দূষিত হচ্ছে। একসময় বিসিক চেয়েছিল এসব বর্জ্য ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) নেওয়ার দায়িত্ব পালন করবে। কিন্তু সিটি করপোরেশন রাজি হয়নি। চামড়াশিল্প নগরের বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের পরিকল্পনাও ছিল। সেই সিদ্ধান্তও বাতিল করা হয়েছে।

বিদ্যমান চামড়াশিল্প নগরের পাশে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কারখানা করা যায় কি না—এমন প্রশ্নে বিসিক চেয়ারম্যান বলেন, এ জন্য যতটুকু জায়গা দরকার, তা বিসিকের হাতে নেই। সেখানে জমি অধিগ্রহণ করতে গেলে একটি প্রকল্প নিতে হবে। আর সেই প্রকল্প অনুমোদনে পাঁচ-ছয় বছর লেগে যাবে।

কবে নাগাদ বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কারখানা নির্মাণের কাজ শুরু হবে জানতে চাইলে বিসিক চেয়ারম্যান বলেন, ‘দুই পক্ষের মধ্যকার সমঝোতা স্মারকের খসড়া শিল্প মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছি। শিগগিরই দুই পক্ষের মধ্যে সমঝোতা স্মারক সই হবে। এরপর সমীক্ষা করতে তিন মাস লাগবে। তারপর চূড়ান্ত চুক্তি হবে।’

বিসিক চেয়ারম্যান আরও বলেন, ‘আমাদের মনে হয়েছে তারা যোগ্য কোম্পানি। তারা অনেক দেশে এ প্ল্যান্ট করেছে। বহু দেশে তাদের কর্মসূচি চলছে। আমরা চাই এখানে প্রকল্পটি বাস্তবায়নে যেন এক বছরের বেশি সময় না লাগে।’

শিল্প থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন