বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে রেডএক্সের দেশের সব কেন্দ্রের অধীনস্থ পণ্য সরবরাহকারী কর্মী, কেন্দ্র ব্যবস্থাপক এবং আঞ্চলিক প্রধানেরা অংশ নেন। তাঁদের মধ্যে সেরা পাঁচজন পণ্য সরবরাহকারী কর্মীর প্রত্যেককে পুরস্কার হিসেবে দেওয়া হয় সুজুকি জিক্সার এসএফ বা টিভিএস বাইক। এ ছাড়া ৩৮ জন কেন্দ্র ব্যবস্থাপক এবং আঞ্চলিক প্রধানদের স্মার্টফোন, অ্যাপল ঘড়ি ও অর্থ পুরস্কার দেওয়া হয়। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়।

২০২০ সালের মার্চে করোনা বিধিনিষেধ শুরুর মাত্র দুই সপ্তাহ আগে লজিস্টিকস কোম্পানি হিসেবে কার্যক্রম শুরু করে দেশীয় স্টার্টআপ শপআপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান রেডএক্স। মাত্র ছয় সপ্তাহের মধ্যে সারা দেশে ডেলিভারি নেটওয়ার্ক গড়ে তোলে তারা। নানা প্রতিকূলতার মধ্যেও সেবা প্রদান অব্যাহত রেখে দেশের উদ্যোক্তাদের ব্যবসা সচল রাখতে সাহায্য করে কোম্পানিটি।

শপআপের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী আফিফ জামান বলেন, ‘সম্মুখসারির কর্মীদের স্বীকৃতি প্রদানের এমন উদ্যোগ শুরু করতে পেরে আমরা গর্বিত। সাধারণত আমরা সারা বছরই এসব কর্মীকে উদ্বুদ্ধ করতে বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করি। তবে বড় পরিসরে কর্মীদের স্বীকৃতি প্রদানের আয়োজন এবারই প্রথম নেওয়া হয়েছে। এ ধরনের উদ্যোগ আগামী বছরগুলোতেও অব্যাহত থাকবে।’

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, রেডএক্স শপআপের মোট বিনিয়োগ ১১ কোটি মার্কিন ডলার, যা দেশে স্টার্টআপের ইতিহাসে সর্বোচ্চ বিদেশি বিনিয়োগ। সম্প্রতি শপআপ ৭ কোটি ৫০ লাখ ডলারের ‘সিরিজ বি’ বিনিয়োগ পেয়েছে, যা দক্ষিণ এশিয়ায় প্রযুক্তিভিত্তিক বি-টু-বি কমার্স প্ল্যাটফর্মে সবচেয়ে বড় বিনিয়োগ।

রেডএক্সের দাবি, বর্তমানে সারা দেশে তাদের ২৫০টির বেশি সরবরাহকেন্দ্র আছে। সম্প্রতি বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া বিজনেস কাউন্সিল তাদের সেরা লজিস্টিকস কোম্পানির স্বীকৃতি দিয়েছে।

শিল্প থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন