বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সূচকের পাশাপাশি আজ লেনদেনেও বড় উত্থান হয়েছে শেয়ারবাজারে। দিন শেষে ঢাকার বাজারে লেনদেনের পরিমাণ ছিল ১ হাজার ৯৭৭ কোটি টাকা, যা গতকালের চেয়ে ৪৯০ কোটি টাকা বেশি। গত প্রায় তিন মাসের ব্যবধানে আজই ডিএসইতে সর্বোচ্চ লেনদেন হয়েছে। এর আগে সর্বশেষ গত ৭ অক্টোবর সর্বোচ্চ ২ হাজার ৪৯৭ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছিল।

নতুন বছরের শুরু থেকেই শেয়ারবাজারে আবার চাঙাভাব দেখা যাচ্ছে। তাতে সূচকের পাশাপাশি লেনদেনেও গতি ফিরেছে। বিশেষ করে সরকারের মালিকানাধীন কোম্পানিগুলোর মূল্যবৃদ্ধির মাধ্যমে গত প্রায় ১০ কার্যদিবস ধরে শেয়ারবাজারে চাঙাভাব দেখা যাচ্ছে। এ সময়ে সরকারি কোম্পানিগুলোর শেয়ারের মূল্যবৃদ্ধির পেছনে বড় ভূমিকা রেখেছে বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশনের (বিএসসি) শেয়ার। কোম্পানিটির শেয়ারের দাম মাত্র ১৩ কার্যদিবসে আড়াই গুণ বেড়েছে। বিএসসির শেয়ারের এ উত্থান সরকারের মালিকানাধীন অন্যান্য কোম্পানির দামের ওপরও বড় ধরনের ইতিবাচক প্রভাব ফেলেছে।

ঢাকার বাজারে আজও লেনদেনের শীর্ষ ১০ কোম্পানির মধ্যে ৪টিই ছিল সরকারি খাতের কোম্পানি। কোম্পানিগুলো হলো পাওয়ার গ্রিড, তিতাস গ্যাস, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেব্‌লস ও বিএসসি। এ চার কোম্পানির সম্মিলিত লেনদেনের পরিমাণ ছিল ৩০৮ কোটি টাকা, যা ডিএসইর মোট লেনদেনের প্রায় সাড়ে ১৫ শতাংশ। আবার মূল্যবৃদ্ধির দিক থেকেও শীর্ষ চার কোম্পানিই ছিল সরকারের মালিকানাধীন। এগুলো হলো ইস্টার্ন কেব্‌লস, তিতাস গ্যাস, ন্যাশনাল টিউবস ও বিএসসি। এই চার কোম্পানির প্রতিটির দাম আজ গড়ে ১০ শতাংশ করে বেড়েছে।

শেয়ারবাজার থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন