default-image

একটানা দরপতন হয়েই চলেছে শেয়ারবাজারে। আজ রোববার সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস প্রথম ৩ ঘণ্টার লেনদেনে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স কমেছে ১৭৪ পয়েন্ট। অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই কমেছে ৪৯৬ পয়েন্ট।

করোনাভাইরাসের প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় এক সপ্তাহের জন্য লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। আগামীকাল সোমবার থেকে এই লকডাউন শুরু হবে। আর এর প্রভাবেই আজ শেয়ারবাজারে ধস নেমেছে।

ডিএসইতে বেলা ১টা নাগাদ লেনদেন হয়েছে ৩৩০ কোটি টাকার। হাতবদল হওয়া শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে কমেছে ২৪৭টির দর, বেড়েছে মাত্র ৭টির, অপরিবর্তিত আছে ৬৩টির দর।

বিজ্ঞাপন

গত কার্যদিবস লেনদেন শেষে ডিএসইএক্স সূচক ৭ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ৫২৭০ পয়েন্টে। ওই দিন লেনদেন হয় ৪৫১ কোটি ৩৩ লাখ টাকার।

অন্যদিকে বেলা ১টা পর্যন্ত সিএসইতে হাতবদল হওয়া শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে কমেছে ১৫৯টির দর, বেড়েছে মাত্র ১২টির, অপরিবর্তিত আছে ১৫টির দর।

করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে গতকাল লকডাউনের ঘোষণা আসে। তবে লকডাউনে শেয়ারবাজারে লেনদেনও সচল থাকবে। আগে থেকেই এ সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছিল পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। গতকাল শনিবার লকডাউনের ঘোষণার সিদ্ধান্ত আসার পর আগের সিদ্ধান্তের কথার পুনরাবৃত্তি করে বিএসইসি। সংস্থাটির মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম এ বিষয়ে প্রথম আলোকে জানান, ‘ব্যাংকে লেনদেন সচল থাকলে শেয়ারবাজারেও লেনদেন অব্যাহত থাকবে। এ সিদ্ধান্ত আমরা আগেই নিয়ে রেখেছি।’
তাই লকডাউনে শেয়ারবাজারের লেনদেন নিয়ে বিনিয়োগকারীদের আতঙ্কিত বা বিভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন রেজাউল করিম।

শেয়ারবাজার থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন