বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বাজারের লেনদেনসংক্রান্ত তথ্য পর্যালোচনা করে দেখা যায়, এপ্রিলের শেষ সপ্তাহ থেকে বাজারে চাঙাভাব ফিরতে শুরু করে। আর চলতি মাস ঈদের আগে-পরে বাজার আরও গতি পায়। তাতে গত এক মাসের ব্যবধানে ঢাকার বাজারের প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৫৬৪ পয়েন্ট বা সাড়ে ১০ শতাংশ বেড়েছে। এর মধ্যে গত তিন কার্যদিবসে বেড়েছে প্রায় ২০০ পয়েন্ট।

বাজারসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, কিছুদিন ধরে ডিএসইতে লেনদেন দেড় থেকে আড়াই হাজার কোটি টাকার মধ্যে ঘুরপাক খাচ্ছে। এতে প্রতিদিনই বাজারে নতুন নতুন বিনিয়োগ বা অর্থ লগ্নি হচ্ছে। বিশেষ করে প্রাথমিক গণপ্রস্তাব বা আইপিওতে আবেদনের ক্ষেত্রে সেকেন্ডারি বাজারে ন্যূনতম ২০ হাজার টাকা বিনিয়োগের বাধ্যবাধকতা আরোপের কারণে চলতি মাসের শুরু থেকে এ বিনিয়োগ এসেছে। আগামী রোববার শুরু হচ্ছে একটি বিমা কোম্পানির আইপিও আবেদন গ্রহণ। ১৯ মে যেসব বিনিয়োগকারীর সেকেন্ডারি বাজারে ২০ হাজার টাকার বেশি বিনিয়োগ ছিল, তাঁরাই এ আইপিওতে আবেদনের সুযোগ পাবেন।

এ ছাড়া আগামী ২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেট যত ঘনিয়ে আসছে, শেয়ারবাজারও তত বেশি চাঙা হচ্ছে। আগামী ৩ জুন নতুন অর্থবছরের বাজেট ঘোষণা করবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। আর ৩০ জুন শেষ হবে চলতি ২০২০-২১ অর্থবছর। চলতি অর্থবছরে মাত্র ১০ শতাংশ কর দিয়ে শেয়ারবাজারে কালোটাকা সাদা করার সুযোগ দেওয়া হয়, এ সুবিধা ৩০ জুন শেষ হয়ে যাবে। বাজারসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা ধারণা করছেন, শেষ দিকে এসে এ সুবিধা নিতে অনেকে শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ করছেন।

বাজার পরিস্থিতি সম্পর্কে জানতে চাইলে বেসরকারি ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বাণিজ্য অনুষদের অধ্যাপক মোহাম্মদ মুসা প্রথম আলোকে বলেন, ব্যাংক, বিমা ও ব্যাংকবহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মূল্যবৃদ্ধির কারণেই মূলত গতকাল সূচকের বড় উত্থান হয়েছে। বাজারের যে গতি, তাতে মনে হচ্ছে শিগগিরই সূচক নতুন উচ্চতায় চলে যেতে পারে। এ অবস্থায় বিনিয়োগের ক্ষেত্রে কিছুটা সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। এরই মধ্যে অনেক শেয়ারের দাম অতিমূল্যায়িত হয়ে গেছে। সেসব শেয়ারে বিনিয়োগের আগে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের সতর্ক থাকতে হবে।

লঙ্কাবাংলা সিকিউরিটিজের প্রতিবেদন অনুযায়ী, গতকালের বাজারে লেনদেনের প্রায় ২৪ শতাংশই ছিল বিমা খাতের দখলে। আর ব্যাংক খাতের দখলে ছিল মোট লেনদেনের ১৯ শতাংশ। ব্যাংকবহির্ভূত আর্থিক খাতের দখলে ছিল মোট লেনদেনের ৬ শতাংশ। সেই হিসাবে শেয়ারবাজারে গতকালের লেনদেনের অর্ধেকই ছিল এ তিন খাতের দখলে।

শেয়ারবাজার থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন