default-image

বিমা খাতের শেয়ারের আবারও অস্বাভাবিক উত্থান শুরু হয়েছে শেয়ারবাজারে। কয়েক দিন ধরে এ প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। শেয়ারবাজারসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা এটিকে বিমার শেয়ারের ‘দ্বিতীয় র‌্যালি’ বলে অভিহিত করছেন। আর তাতেই বিনিয়োগকারী থেকে শুরু করে বাজারসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের অনেকের মনে আতঙ্ক ভর করেছে।

বাজারসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বিমার শেয়ার নিয়ে প্রথম র‌্যালিটি হয়েছিল গত বছরের আগস্ট-নভেম্বরে। তখন এ খাতের কোনো কোনো শেয়ারের দাম ৪-৫ গুণ পর্যন্ত বেড়ে গিয়েছিল। পরে ওই দাম কমতে শুরু করে। তাতেই বেশি দামে শেয়ার কিনে সবচেয়ে বেশি লোকসানে পড়েন সাধারণ বিনিয়োগকারীরা। গত বছর একটি সংঘবদ্ধ চক্র কারসাজির মাধ্যমে বিমার শেয়ারের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির ঘটনা ঘটায়। নানা তদন্তে সেসব কারসাজিকারকদের নামও বেরিয়ে আসে। কিন্তু তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এখন এসে আবারও পুরোনো কারসাজিকারকেরা বিমা শেয়ার নিয়ে কারসাজিতে মেতেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গতকাল মূল্যবৃদ্ধির শীর্ষ ১০ কোম্পানির মধ্যে সব কটিই ছিল বিমা খাতের। এসব শেয়ারের প্রতিটিরই প্রায় ১০ শতাংশ করে বেড়েছে। মূল্যবৃদ্ধির শীর্ষ ১০ কোম্পানিসহ গতকাল ঢাকার বাজারে লেনদেন হওয়া বিমা খাতের ৪৬ কোম্পানির মধ্যে ৪৪টিরই দাম বেড়েছে। আর কমেছে একটির, অপরিবর্তিত ছিল একটির দাম।

বিজ্ঞাপন

বিমা খাতের শেয়ারের দামের আবার এ উত্থানে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আবারও আতঙ্ক ভর করেছে। একাধিক বিনিয়োগকারী নাম প্রকাশ না করার শর্তে গতকাল প্রথম আলোকে বলেন, এর আগেও নিয়ন্ত্রক সংস্থার চোখের সামনে হুহু করে বিমা খাতের শেয়ারের দাম বাড়ানো হয়েছিল। পরে তা কমে যায়। ওই সময় কারসাজিকারকদের কেউ কেউ হয়তো তাদের হাতে থাকা সব শেয়ার বিক্রি করতে পারেনি। তাই দ্বিতীয়বারের মতো দাম বাড়িয়ে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের প্রলুব্ধ করে হাতে থাকা বাকি শেয়ার বিক্রির চেষ্টা চালাচ্ছে তারা। এ ছাড়া বিমা কোম্পানির শেয়ারের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির কোনো কারণ খুঁজে পাচ্ছেন না সাধারণ বিনিয়োগকারীরা।

সাম্প্রতিক সময়ে বিমা খাতের শেয়ারের দামের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির তালিকায় রয়েছে এশিয়া প্যাসিফিক ইনস্যুরেন্স, প্রভাতি ইনস্যুরেন্স ও বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইনস্যুরেন্স। এর মধ্যে এশিয়া প্যাসিফিকের দাম মাত্র ১২ কার্যদিবসে ১২ টাকার বেশি বেড়েছে। আর প্রভাতি ইনস্যুরেন্স ও বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইনস্যুরেন্সের দাম এক মাসে যথাক্রমে ৩৪ শতাংশ ও সাড়ে ৩৭ শতাংশ করে বেড়েছে।

এদিকে করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে সোমবার থেকে বিধিনিষেধ আরোপের দ্বিতীয় দিনে গতকাল মঙ্গলবারও শেয়ারবাজারে সূচকের বড় উত্থান হয়েছে। ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স এদিন ১০৪ পয়েন্ট বা ২ শতাংশ বেড়েছে। অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচকটি বেড়েছে ১৯৭ পয়েন্ট বা প্রায় ২ শতাংশ। সোমবার থেকে বিধিনিষেধ আরোপের পর ব্যাংকের লেনদেনের সময় কমে যাওয়ায় শেয়ারবাজারের লেনদেনও দুই ঘণ্টা কমে যায়। তারপরও গতকাল ঢাকার বাজারে লেনদেন দাঁড়িয়েছে ৫০৮ কোটি টাকায়, যা আগের দিনের চেয়ে ২৭১ কোটি টাকা বেশি। অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রামে গতকাল লেনদেন হয় প্রায় ১৫১ কোটি টাকার, যা আগের দিনের চেয়ে ১৩৫ কোটি টাকা বেশি।

শেয়ারবাজার থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন