default-image

অবশেষে পাঁচ দিন পর সাতক্ষীরার ভোমরা, চাঁপাইনবাবগঞ্জের সোনামসজিদ ও দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারতীয় পেঁয়াজ আসতে শুরু করেছে। তবে সেসব পেঁয়াজের একটি অংশ পচে নষ্ট হয়ে গেছে বলে দাবি করেছেন ব্যবসায়ীরা। তার আগে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন সীমান্তে আটকে থাকা পেঁয়াজবোঝাই ট্রাককে বাংলাদেশে রপ্তানির জন্য শুল্ক বিভাগকে নির্দেশ দিয়েছে ভারত সরকার।

বিজ্ঞাপন

ভারতের ঘোঝাডাঙ্গা স্থলবন্দর দিয়ে আজ শনিবার বেলা একটা পর্যন্ত পেঁয়াজভর্তি ১৪টি ট্রাক ভোমরা বন্দরে ঢোকে। তবে এই পেঁয়াজের শতকরা ৪০ থেকে ৫০ ভাগ পচে নষ্ট হয়ে গেছে বলে দাবি করেছেন ব্যবসায়ীরা।

ভোমরা কাস্টমস সূত্র জানায়, কোনো ধরনের পূর্বঘোষণা ছাড়াই গত সোমবার ভারত সরকার বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয়। এতে ভারতের ঘোঝাডাঙ্গা বন্দরে অপেক্ষায় থাকা পেঁয়াজভর্তি প্রায় ৩০০ ট্রাক আটকে যায়।

আজ সকাল সাড়ে ১০টায় সরেজমিনে ভোমরা স্থলবন্দরে দেখা যায়, ভারত থেকে পণ্যবাহী ট্রাক বাংলাদেশে ঢুকছে। দুপুর ১২টার দিকে পাথরভর্তি কয়েকটি ট্রাক বাংলাদেশে ঢোকে। বেলা একটার দিকে একসঙ্গে আসে পেঁয়াজভর্তি ১৪টি ট্রাক।

বিজ্ঞাপন

সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দরের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান জানান, আজ সারা দিনে ৩০ ট্রাক পেঁয়াজ বাংলাদেশে ঢুকতে পারে। তবে এসব পেঁয়াজের ৪০ থেকে ৫০ শতাংশ পচে নষ্ট হয়ে গেছে। তিনি বলেন, ঘোজাডাঙ্গা বন্দরে বাংলাদেশে ঢোকার অপেক্ষায় আছে পেঁয়াজভর্তি ৩০০ ট্রাক। প্রতিটি ট্রাকে রয়েছে প্রায় ২৫ মেট্রিক টন পেঁয়াজ।

default-image
বিজ্ঞাপন

এদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জের সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে আজ বেলা ১১টার থেকে ১টা পর্যন্ত ভারতীয় পেঁয়াজবাহী আটটি ট্রাক বাংলাদেশে ঢুকেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সোনামসজিদ বন্দর পরিচালনার সঙ্গে যুক্ত পানামা পোর্ট লিংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপক মাইনুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, ভারতীয় পেঁয়াজবোঝাই আটটি ট্রাক বাংলাদেশে ঢুকেছে। এতে ২১৩ মেট্রিক টন পেঁয়াজ রয়েছে। আজ আর পেঁয়াজবাহী ট্রাক আসার সম্ভাবনা নেই। তবে পেঁয়াজের একটা অংশ নষ্ট হয়ে গেছে।

বিজ্ঞাপন

এদিকে দিনাজপুর থেকে প্রথম আলোর প্রতিনিধি জানান, দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আজ শনিবার বেলা তিনটায় ভারতীয় পেঁয়াজ বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে।

হিলি স্থলবন্দর শুল্ক বিভাগের ডেপুটি কমিশনার সাইদুল আলম বলেন, ভারত গত সোমবার পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ ঘোষণা করার সময় যেসব পেঁয়াজবোঝাই গাড়ি পথে আটকা পড়েছিল, মূলত সেই গাড়িগুলোই ছাড়পত্র পেয়ে আজ হিলি স্থলবন্দর দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। তিনি আরও বলেন, রবি ও সোমবার মোট ২৪৬ মেট্রিক টন পেঁয়াজের ঋণপত্র করেছিলেন দেশের আমদানিকারকেরা। সেই ঋণপত্রের বিপরীতে আটকে থাকা পেঁয়াজের মধ্যে ১১-১২টি ট্রাক আজ বাংলাদেশে প্রবেশ করছে।

হিলি স্থলবন্দরের পেঁয়াজ আমদানিকারক আকাশ ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী আলমগীর রহমান বলেন, তাঁর চার ট্রাক পেঁয়াজ বাংলাদেশে এসেছে। প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৩৫ টাকায় কিনেছেন তিনি। তিনি বলেন, পাঁচ দিন ধরে স্থলবন্দরে পেঁয়াজের ট্রাক আটকে ছিল। এতে অর্ধেকের বেশি পেঁয়াজ পচে গেছে, এমন আশঙ্কা করছেন তিনি।

মন্তব্য পড়ুন 0