default-image

করোনা সংক্রমণ রোধে ১৪ এপ্রিল থেকে এক সপ্তাহের কঠোর লকডাউনের প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার। সেই লকডাউনে ব্যাংক খোলা থাকলে শেয়ারবাজারে লেনদেনও সচল থাকবে। আগে থেকেই এ সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

সংস্থাটির মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম আজ এ বিযয়ে এক লিখিত বার্তায় বলেন, ‘কোভিড-১৯ মহামারিসহ সর্বাত্মক লকডাউন চলাকালে ব্যাংকিং কার্যক্রম চালু থাকলে বিনিয়োগকারীদের স্বার্থে পুঁজিবাজারের সকল লেনদেন অব্যাহতভাবে চালু থাকবে।’

বিজ্ঞাপন

গত শনিবার করোনা সংক্রমণ রোধে এক সপ্তাহের বিধিনিষেধ ঘোষণা করেছিল সরকার। তখনও বিএসইসি জানিয়েছিল, ব্যাংক খোলা থাকলে শেয়ারবাজারও চালু থাকবে। এরপর সরকারি বিধিনিষেধের কারণে ব্যাংকের লেনদেন সময় কমিয়ে আনা হলে তার সঙ্গে সমন্বয় করে শেয়ারবাজারের লেনদেনও দুই ঘণ্টায় নামিয়ে আনা হয়।

তার আগে লকডাউনে লেনদেন বন্ধের গুজবে বাজারে পতন থামাতে গত ২২ মার্চ জরুরি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে বিএসইসি। এতে বলা হয়েছিল, করোনাকালে যে কোনো সময় ব্যাংকের কার্যক্রম চালু থাকলে শেয়ারবাজারের লেনদেনও অব্যাহত থাকবে। তাই এ ব্যাপারে বিনিয়োগকারীদের কোনো ধরনের গুজবে কান না দেওয়ার অনুরোধ জানায় নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

মহামারি করোনার কারণে গত বছরের ২৬ মার্চ থেকে সরকার সাধারণ ছুটি ঘোষণা করলে তখন শেয়ারবাজারে লেনদেন বন্ধ ঘোষণা করা হয়। ওই সময় একটানা ৬৬ দিন লেনদেন বন্ধ ছিল শেয়ারবাজারে। দীর্ঘ ওই ছুটির পর ৩১ মে থেকে পুনরায় লেনদেন চালু হয়।

বিজ্ঞাপন
শেয়ারবাজার থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন