default-image

মানুষের জীবনের অন্যতম একটি চারিত্রিক গুণ হলো মানবিকতা। একজন সফল মানুষকে এই গুণ যেন আরও অনন্য করে তোলে। আর এটিই যেন প্রমাণ করলেন ভারতের শিল্পপতি রতন টাটা। নিজের প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের প্রতি সহানুভূতিশীল বলে সুনাম রয়েছে তাঁর। এমনকি সাবেক কর্মীর খোঁজখবর রাখেন তিনি। সম্প্রতি অসুস্থ এক সাবেক কর্মীর সঙ্গে দেখা করতে মুম্বাই থেকে পুনে পর্যন্ত ছুটে যান ৮৩ বছর বয়সী রতন টাটা।

দুই বছর ধরে অসুস্থ ওই কর্মী। সারা দিন বাড়িতেই পড়তে থাকতে হয় তাঁকে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের একটি পোস্টে তাঁর কথা জানতে পারেন ভারতীয় শিল্পপতি রতন টাটা। কোনো মিডিয়া বা কাউকে সঙ্গে না নিয়েই হুট করে ওই কর্মীর বাড়িতে হাজির হন তিনি। সকালে বাড়ির বাইরে হাত জোড় করে দাঁড়িয়ে থাকা রতন টাটাকে দেখে হতভম্ব হয়ে যান ওই কর্মী। তিনি ভাবতেই পারেননি তাঁকে দেখতে রতন টাটা নিজেই বাড়িতে চলে আসবেন। ইন্ডিয়া ডট কমের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে আসে।

বিজ্ঞাপন
default-image

পুনের ফ্রেন্ডস সোসাইটির সদস্য যোগেশ দেশাই সাবেক কর্মীর সঙ্গে রতন টাটার সাক্ষাতের একটি ছবি তোলেন। সেটি লিংকডইনে শেয়ার করলে মুহূর্তেই তা ভাইরাল হয়ে যায়। তিনি জয় করে নেন মানুষের হৃদয়।

রতন টাটা ওই কর্মীর খোঁজখবর নেন, তাঁকে সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস দেন। তাঁর এই অসাধারণ সহানুভূতিশীল আচরণ সবার জন্য উদাহরণ হয়ে থাকবে।
এর আগে মুম্বাই হামলায় স্বজন হারানো ৮৮০টি পরিবারের সঙ্গে দেখা করেছিলেন রতন টাটা। ওই সব পরিবারের শিশুদের পড়াশোনা ও বয়স্ক সদস্যদের চিকিৎসার খরচ বহন করেছিলেন রতন টাটা।

১৯৩৭ সালে বর্তমান মুম্বাইয়ে জন্মগ্রহণ করেন রতন টাটা। তিনি টাটা মোটরস, টাটা স্টিল, টাটা কনসালটেন্সি সার্ভিসেস, টাটা পাওয়ার, টাটা গ্লোবাল বেভারেজ, টাটা কেমিক্যালস, ইন্ডিয়ান হোটেলস এবং টাটা টেলিজ সার্ভিসেসের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

বিশ্ববাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন