default-image

করোনাভাইরাসের প্রভাব থেকে অর্থনীতিকে বাঁচাতে আবারও পদক্ষেপ নিল যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ। এবার নীতিনির্ধারণী সুদের হার প্রায় শূন্যে নামিয়ে এনেছে ফেড, একই সঙ্গে এই বৈশ্বিক মহামারির প্রভাব থেকে অর্থনীতিকে রক্ষা করার জন্য ৭০০ বিলিয়ন ডলারের তহবিল গঠন করা হয়েছে।

গতকাল রোববার যুক্তরাজ্য, জাপান, ইউরোজোন, কানাডা এবং সুইজারল্যান্ড করোনাভাইরাসের প্রভাব মোকাবিলায় সমন্বিত পদক্ষেপ নেওয়ার ঘোষণা দেয়। তারই অংশ হিসেবে পরে যুক্তরাষ্ট্র এই পদক্ষেপ নিল।

এক সংবাদ সম্মেলনে ফেড চেয়ারম্যান জেরোমি পাওয়েল বলেন, বিশ্বব্যাপী এই মহামারি অর্থনীতিতে একটি ‘গভীর’ প্রভাব ফেলছে। এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, এই জরুরি পদক্ষেপে তিনি খুবই খুশি।

নতুন পদক্ষেপ অনুযায়ী ফেড নীতিনির্ধারণী সুদের হার নির্ধারণ করেছে ০ থেকে ০.২৫ শতাংশ। এ ছাড়া অর্থনীতিতে সরাসরি তারল্য বাড়াতে বন্ড কিনবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। নতুন ঘোষণার অংশ হিসেবে ফেড বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর জন্য ডলারের প্রাপ্তি বাড়াতে অন্য দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলোর সঙ্গে কাজ করবে।

এর আগে ৩ মার্চ জরুরিভাবে সুদহার কমানোর ঘোষণা দেয় ফেডারেল রিজার্ভ (ফেড)। ২০০৮ সালের মন্দার পর প্রথম কোনো ঘোষণা ছাড়াই এমন সিদ্ধান্ত নেয় ফেড। অর্থনীতির ক্ষতি কাটাতে একদফায় ৫০ বেসিস পয়েন্ট কমিয়ে নতুন সুদহার করা হয় ১ শতাংশ থেকে ১ দশমিক ২৫ শতাংশ। অর্থনৈতিক পক্ষাঘাতে করপোরেট কোম্পানিগুলো লোকসানে পড়বে এবং বিশ্বব্যাপী মন্দা ছড়াবে—এই আশঙ্কায় সাম্প্রতিক সময়ে যুক্তরাষ্ট্রের পুঁজিবাজারে ধস নামে। তবে ফেডের নতুন এই সিদ্ধান্তে পুঁজিবাজার ঘুরে দাঁড়াবে—এমনটায় আশা করা হচ্ছিল। তবে যুক্তরাষ্ট্রের স্টকমার্কেট ফিচারের পূর্বাভাস অনুযায়ী আজকে পুঁজিবাজারে সূচক অন্তত ৪ শতাংশ কমবে।

এর আগে গত সপ্তাহে এক জরুরি সভা শেষে পাওয়েল হুঁশিয়ারি করেন, ইতিমধ্যে এটা স্পষ্ট যে করোনাভাইরাস অর্থনীতিতে বড় ধরনের প্রভাব ফেলছে। তবে প্রভাব কতটা সুদূরপ্রসারী হবে, তা এখনই বলার সময় আসেনি।

বিজ্ঞাপন
বিশ্ববাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন