default-image

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কোভিড মহামারি আবার জেঁকে বসেছে। অনেক রাজ্যেই কারফিউ দেওয়া হয়েছে এবং ওয়াশিংটনে যেন কাজকর্ম সব থমকে গেছে, অথচ কেবলই সংকোচন থেকে প্রবৃদ্ধির ধারায় ফিরেছিল মার্কিন অর্থনীতি। নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এখনো ক্ষমতা গ্রহণ করেননি, এই পরিস্থিতিতে মার্কিন বিনিয়োগ ব্যাংক জেপি মরগ্যান সতর্ক করে দিল, মার্কিন অর্থনীতি আবার সংকুচিত হবে।

গ্রাহকদের উদ্দেশে প্রেরিত এক নোটে জেপি মরগ্যান বলেছে, ‘এই শীতকাল প্রকৃতির মতোই কঠোর হবে। আমরা মনে করছি, আগামী বছরের প্রথম প্রান্তিকে অর্থনীতি আবার সংকুচিত হবে। সিএনএন সূত্রে এই খবর পাওয়া গেছে।’

বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছিল মার্কিন অর্থনীতি। প্রবৃদ্ধি হয়েছিল বার্ষিক হিসাবে ৩৩ দশমিক ১ শতাংশ। কিন্তু এখন জেপি মরগ্যান ধারণা করছে, চতুর্থ প্রান্তিকে এই হার দাঁড়াবে ২ দশমিক ৮ শতাংশ এবং আগামী বছরের পয়লা প্রান্তিকে সংকোচন হবে ১ শতাংশ।  

কোভিড সংক্রমণ আবার ব্যাপক হারে বেড়ে যাওয়ায় এই পরিস্থিতির আশঙ্কা করছে জেপি মরগ্যান। স্বাভাবিকভাবেই বিভিন্ন রাজ্যে স্বাস্থ্য–সংক্রান্ত বিধিনিষেধ দিতে হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

যেমন নিউইয়র্ক শহরের সরকারি বিদ্যালয় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে, ক্যালিফোর্নিয়া ও ওহাইও রাজ্যজুড়ে আবার কারফিউ জারি করা হয়েছে ও চিড়িয়াখানা পর্যন্ত বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এসব পদক্ষেপের কারণে স্বাভাবিকভাবেই মার্কিন অর্থনীতি আবার চাপের মুখে পড়বে।

এই পরিস্থিতিতে অর্থনীতি কীভাবে সামলানো যাবে, তা নিয়ে ফেডারেল সরকার একমত হতে পারছে না। রিপাবলিকান ও ডেমোক্র্যাটরা নতুন রাজস্ব প্রণোদনার ব্যাপারে একমত হতে বারবার ব্যর্থ হচ্ছে। ফলে বছরের শেষ নাগাদ ১ কোটি ২০ লাখ মার্কিন নাগরিক সরকারি সুবিধা হারাতে পারেন।

এই পরিস্থিতিতে কংগ্রেস জাতির প্রতি দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছে বলে মনে করছেন মার্কিন পরামর্শক প্রতিষ্ঠান কামবারল্যান্ড অ্যাডভাইজর্সের প্রধান বিনিয়োগ কর্মকর্তা ডেভিড কোটক। আর প্যানথেয়ান ম্যাক্রোইকোনিমকসের প্রধান অর্থনীতিবিদ ইয়ান শেফার্ডসন দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হওয়ার জন্য কংগ্রেসকে একদম ধুয়ে দিয়েছেন।

মন্তব্য করুন