default-image

মার্কিন ইতিহাসের প্রথম নারী অর্থমন্ত্রী জেনেট ইয়েলেন। বলা যায়, অর্থনীতির সবচেয়ে কঠিন সময়ে এই দায়িত্ব হাতে এল তাঁর। সম্প্রতি কঠিন এই সময় পার করে বিশ্ব অর্থনীতিতে আবারও যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্ব ফিরিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি। বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তন থেকে শুরু করে কর ফাঁকি প্রতিরোধে শক্তিশালী অবস্থানের ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি।

সম্প্রতি পররাষ্ট্রনীতি নিয়ে নিজের প্রথম বক্তব্যে জেনেট ইয়েলেন বলেন, ‘আমেরিকা সবার আগে অবশ্যই, তবে আমেরিকা একা নয়।’ তিনি সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সুরক্ষামূলক নীতিগুলো উঠিয়ে নিয়ে বৃহত্তর বৈশ্বিক সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে এগিয়ে যেতে আগ্রহী।

প্রথম দেওয়া ওই বক্তব্যে তিনি বৈশ্বিক করপোরেট করের হারের বিষয়টিও উত্থাপন করেন। কম ট্যাক্স আরোপ করে করপোরেশনগুলো প্রলুব্ধ করা প্রতিযোগী দেশগুলোর দৌড় থেকে সরে আসতে চান তিনি।

বিজ্ঞাপন

সাবেক প্রেসিডেন্টের আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক নীতিগুলোর সমালোচনা করে ইয়েলেন বলেন, ‘আমরা গত চার বছরে দেখেছি যুক্তরাষ্ট্র বিশ্ব মঞ্চ থেকে সরে দাঁড়ালে কী ঘটে।’ তিনি বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র নিজেকে বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছিল এবং আমরা যে আন্তর্জাতিক ব্যবস্থা তৈরি করেছিলাম, তা থেকে পিছিয়ে গেছি।’

ইয়েলেন বলেন, ‘বাইডেন প্রশাসন আমেরিকার স্বার্থকে এগিয়ে নিতে চায়, সেই সঙ্গে বিশ্ব অর্থনীতিকে আরও শক্তিশালী করার জন্য সহায়তা করতেও প্রতিশ্রুতিবদ্ধ তিনি।’
চীনের সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়ে মার্কিন অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘চীনের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক বৃহত্তর হবে। অর্থনৈতিক সম্পর্ক যেখানে প্রতিযোগিতামূলক, সেখানে তেমন হবে; যখন সহযোগিতামূলক, তখন তা হবে এবং যেসব বিষয়ে আমাদের কঠোর হওয়া উচিত, সেখানে প্রতিকূল হবে।’ সূত্র: বিবিসি অনলাইন

বিশ্ববাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন