default-image

ভারতে প্রথমবারের মতো ‘পেপারলেস বাজেট’ পেশ করছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। আগেই তিনি বলেছিলেন, ‘এমন বাজেট আগে কখনো হয়নি।’ আর সেই কথামতো ট্যাবলেট কম্পিউটার হাতে নতুন অর্থবছরের বাজেট পড়ছেন অর্থমন্ত্রী। আজ সোমবার ২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেট পেশ করা হচ্ছে ভারতে। কোভিড-১৯ সংক্রমণের কারণে দেশের ইতিহাসে এই প্রথম বাজেটের কোনো নথি ছাপানো হবে না। পুরো বাজেট পাওয়া যাবে অনলাইনে।

গত অর্থবছরে যখন বাজেট পেশ করা হয়, ভারতে তখনো করোনার প্রকোপ শুরু হয়নি। তবে এবার একেবারে করোনাকালে পেশ হচ্ছে এই বাজেট। এ ছাড়া ১৯৫২ সালের পর এই প্রথম সংকোচনের ধারায় রয়েছে ভারতীয় অর্থনীতি। এ অবস্থায় দেশকে প্রবৃদ্ধির ধারায় নেওয়ার চ্যালেঞ্জ রয়েছে অর্থমন্ত্রীর হাতে। ২০২১-২২ সালে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ধরা হয়েছে ১১ শতাংশ।

বিজ্ঞাপন

ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যমের তথ্য অনুযায়ী, পুরো বাজেটে প্রাধান্য পেয়েছে স্বাস্থ্য খাত। স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানগুলোকে শক্তিশালী করতে ৬৪ হাজার ১৮০ কোটি রুপির প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন অর্থমন্ত্রী। সব জেলায় তৈরি করা হবে স্বাস্থ্য ল্যাবরেটরি। এ ছাড়া বাজেট ঘোষণায় তিনি বলেন, ‘মহামারি সামাল দিতে প্রতিষেধক তৈরি করেছি আমরা, আরও দুটি প্রতিষেধক আসছে।’

বাজেট করোনাকালের জন্য ২৭ লাখ কোটি রুপির প্যাকেজ ঘোষণা করেছে দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংক। পরিবেশ রক্ষায় বরাদ্দ রাখা হয়েছে ২ হাজার কোটি টাকা। এ ছাড়া তরুণ জনগোষ্ঠী ও শিশুদের উন্নয়নে বড় প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে বাজেটে।

বিশ্ববাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন