বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ ছাড়া রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় নিয়ন্ত্রণাধীন সংবাদমাধ্যম আরটি ও স্পুতনিকের সংবাদ বা বিষয়বস্তু ইন্টারনেট ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্লক করতে এখন আইন কার্যকর করার সময় এসেছে বলে ব্রিটিশ সরকারের বরাতে বিবিসির প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়। ব্রিটিশ প্রযুক্তি ও ডিজিটাল অর্থনীতি বিষয়ক মন্ত্রী ক্রিস ফিলপ বলেন, ‘এরই মধ্যে আরটি ও স্পুতনিককে ব্রিটিশ বিমান পরিবহন সংস্থা বা ব্রিটিশ বিমানে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এখন আমরা এ দুটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কাউকে ব্যবসা না করতে বলেছি।’
ইউক্রেনে রাশিয়া হামলার শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত ব্রিটিশ সরকার দেশটির ১ হাজার ৬০০ ব্যক্তি ও সংস্থার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করছে। যুদ্ধ যত দীর্ঘায়িত হচ্ছে, নিষেধাজ্ঞার আওতা তত বাড়ছে।

বিশ্ববাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন