করোনায় আমাজন-অ্যাপলের ব্যবসার বাড়বাড়ন্ত

বিজ্ঞাপন
default-image

করোনাভাইরাসের জেরে বিশ্ব অর্থনীতি জেরবার হলেও প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোর ক্ষেত্রে ব্যাপারটা ঠিক উল্টো। তাদের যেন বাড়বাড়ন্ত শুরু হয়েছে।

এপ্রিল-জুন প্রান্তিকে আমাজনের বিক্রি বেড়েছে ৪০ শতাংশ। অন্যদিকে, অ্যাপলের আইফোন ও অন্যান্য হার্ডওয়্যার বিক্রির হারও বেড়েছে। বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

বিক্রির পাশাপাশি ফেসবুকের বিভিন্ন প্ল্যাটফর্ম যেমন, হোয়াটসঅ্যাপ ও ইনস্টাগ্রামে মানুষের অন্তর্ভুক্তি ১৫ শতাংশ বেড়েছে, যদিও ফেসবুকের বিরুদ্ধে একাধিক তদন্ত চলছে।

গত বুধবার মার্কিন কংগ্রেসের এক শুনানিতে বড় প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোর প্রধান নির্বাহীদের ডেকে কড়া কথা বলেছেন আইনপ্রণেতারা।

মার্কিন আইনপ্রণেতাদের অভিযোগ, এই বড় কোম্পানিগুলো নিজেদের প্রভাব কাজে লাগিয়ে প্রতিপক্ষকে দমিয়ে রাখছে। তাঁরা এই বড় কোম্পানিগুলোর ভবিষ্যৎ ও ছোট কোম্পানিগুলোর ভবিষ্যৎ পথরেখা দেখে এসব কথা বলেছেন।

মহামারির মধ্যে প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোর অবস্থা আরও ভালো হবে বলেই ধারণা করা হচ্ছে। মহামারির মধ্যে মানুষ আরও বেশি অনলাইননির্ভর হয়ে যাওয়ায় প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোর বাড়বাড়ন্ত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কংগ্রেসম্যান ডেভিড সিসিলিন। ডেভিড সিসিলিন বলেন, ‘করোনাভাইরাস মহামারির আগেই এসব করপোরেশন আমাদের অর্থনীতিতে মহিরুহ হয়ে উঠেছিল। এখন কোভিডের পর তাদের আরও শক্তিশালী হয়ে ওঠারই কথা।’

বিবিসির প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, এপ্রিল-জুন প্রান্তিকে আমাজনের বিক্রি যে কেবল ৪০ শতাংশ বেড়েছে তা–ই নয়, এই প্রান্তিকে তার যে প্রবৃদ্ধি, সেটা বার্ষিক হিসাবেও সর্বোচ্চ। এই সময়ে মুনাফা ২৬০ কোটি ডলার থেকে এক লাফে দ্বিগুণ হয়ে ৫২০ কোটি ডলারে উঠেছে।

এই সময়ে আমাজন সারা পৃথিবীতে ১ লাখ ৭৫ হাজার নতুন কর্মী নিয়োগ দিয়েছে। একই সঙ্গে তারা গুদামের সক্ষমতা বাড়ানোরও চেষ্টা করছে।

অন্যদিকে অ্যাপল বলেছে, এপ্রিল-জুন ত্রৈমাসিকে তাদের রাজস্ব ১১ শতাংশ বেড়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন