বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাজ্যে ও আয়ারল্যান্ডে তাদের ৮১টি স্টোর বন্ধ করে দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে গ্যাপ। গ্যাপ জানিয়েছে, পর্যায়ক্রমে এই স্টোরগুলো বন্ধ করা হবে। আগস্টের শেষ থেকে সেপ্টেম্বরের শেষ পর্যন্ত এই কার্যক্রম চলবে। অবশ্য এর মধ্যে ১৯টি স্টোরের লিজ চুক্তি শেষ হয়ে যাওয়ায় এই জুলাইতে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে।
স্টোর বন্ধ করে দেওয়ায় কত কর্মী ছাঁটাই হবে বা কর্মীদের ওপর কী প্রভাব পড়বে, সে বিষয়ে এখনো কিছু জানায়নি গ্যাপ। তবে এ বিষয়ে ইতিমধ্যে কর্মীদের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে গ্যাপ।

সংস্থাটি বলেছিল যে এটি ‘যুক্তরাজ্যের বাজার থেকে বের হচ্ছে না’ এবং সব দোকান বন্ধ হয়ে গেলে একটি ওয়েবভিত্তিক স্টোরের মাধ্যমে ব্যবসা অব্যাহত থাকবে। গ্যাপের একজন মুখপাত্র বলেছেন, ইউরোপে ব্যবসার ক্ষেত্রে এটা করা যায় কি না, তা কৌশলগত পর্যালোচনা করছে গ্যাপ। ফ্রান্স ও ইতালিতেও হয়তো তারা ব্যবসায়িক নীতি পাল্টাবে। সংস্থাটি জানিয়েছে যে তারা অন্য একটি কোম্পানির সঙ্গে ফ্রান্সের সব স্টোর বিক্রি করার বিষয়ে আলোচনা করেছে।

১৯৮৭ সালে যুক্তরাজ্যে যখন প্রথম গ্যাপ আসে ব্যাপক হইচই পড়ে। এর নানা ডিজাইনের পোশাক ব্যাপক জনপ্রিয় হয়। তবে কিছুদিন ধরে ব্যবসা ভালো যাচ্ছিল না গ্যাপের। বিশ্বব্যাপী অনলাইন ব্যবসার প্রসারে টিকে থাকতে লড়াই করতে হচ্ছিল গ্যাপকে। এর মধ্যে করোনা মহামারি দুর্বল অবস্থানে নিয়ে গেছে গ্যাপকে।

বিশ্ববাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন