default-image

যুক্তরাষ্ট্রে গত জুনে চাকরিতে নিয়োগ আশাব্যঞ্জক হারে বাড়লেও জুলাইয়ে তা বেশ কমে গেছে। জুনে দেশটিতে ৪৮ লাখ কর্মসংস্থান হয়। জুলাইয়ে হয় ১৮ লাখ। বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

করোনার কারণে দেশটিতে বেকারত্বের হার হু হু করে বাড়লেও সেই ধারা এখন কমে এসেছে। জুলাইয়ে দেশটির বেকারত্বের হার দাঁড়ায় ১০ দশমিক ২ শতাংশ। এপ্রিলে করোনা সংক্রমণের সর্বোচ্চ অবস্থায় তা ছিল ১৪ দশমিক ৭ শতাংশ।

অক্সফোর্ড ইকোনমিকসের ক্যাথি বোস্টজানসিক বলেন, ‘যদিও এই সংখ্যা আমাদের প্রত্যাশা ছাড়িয়ে গেছে; তবে এটি সবকিছু যে ঠিকঠাক, তার সংকেত দিচ্ছে না। আমরা এখনো ভালো শ্রমবাজার থেকে অনেকটা দূরে।’

গত শুক্রবার প্রকাশিত সরকারি পরিসংখ্যানে দেখা যায়, করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া খাতগুলো কিছুটা ঘুরে দাঁড়িয়েছে। রেস্তোরাঁ, বার, খুচরা দোকানগুলোয় কর্মসংস্থানের সংখ্যা বেড়েছে সবচেয়ে বেশি।

অর্থনীতিবিদেরা বলছেন, নিয়োগ দেখেই বোঝা যাচ্ছে, দেশজুড়ে বিভিন্ন কোম্পানি পুনরায় খোলার অনুমতি দেওয়ায় ভালো প্রভাব পড়েছে।

ফেব্রুয়ারি থেকে যুক্তরাষ্ট্র প্রায় ১ কোটি ২০ লাখ কর্মসংস্থান হারিয়েছে।

যে বেকারত্বের হার মাত্র সাড়ে ৩ শতাংশ ছিল, এপ্রিলে তা বেড়ে ১৪ দশমিক ৭ শতাংশে পৌঁছে যায়।

বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে দেশটির অর্থনীতি ব্যাপক সংকুচিত হয়েছে, যা ৭০ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ সংকোচন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন