default-image

বর্তমানে বিশ্বে দুই শীর্ষ ধনী মার্কিন ই-কমার্স জায়ান্ট আমাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোস ও বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টেসলার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এলন মাস্ক। এলন মাস্কের আরেকটি পরিচয় রকেট কোম্পানি স্পেসএক্সের মালিক তিনি। কয়েক মাস ধরে শীর্ষত্ব নিয়ে আলোচনায় তারা। বিশ্বের শীর্ষ ধনী একবার বেজোস হন তো একবার হন এলন।

তবে এবার দুজনের বাগড়া লেগেছে প্রতিযোগিতামূলক উপগ্রহভিত্তিক ইন্টারনেট ব্যবসা নিয়ে। আমাজনের বিরুদ্ধে স্পেসএক্সের অভিযোগ দম বন্ধ করা প্রতিযোগিতা করছে তারা। অন্যদিকে আমাজন বলছে, নমনীয় প্রতিযোগিতা করছে স্পেসএক্স।

স্পেসএক্সের প্রধান নির্বাহী এলন মাস্কের আনুমানিক সম্পদের পরিমাণ এখন ২০ হাজার ৯০০ কোটি ডলার। অন্যদিকে বেজোসের সম্পদের পরিমাণ ১৯ হাজার ২০০ কোটি ডলার। আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের তথ্য অনুযায়ী বলা যায়, তাঁদের দুজনের সম্পত্তি বিশ্বের অর্ধেকেরও বেশি দেশের মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) সমান।

এখন এই দুজনের মধ্যে ঝামেলা হচ্ছে, স্পেসএক্স চাইছে তার স্যাটেলাইট ইন্টারনেট সেবা স্টারলিংকের লাইসেন্স পরিবর্তন করতে। বর্তমানে কক্ষপথে স্পেসএক্সের প্রায় ৯০০টি স্টারলিংক উপগ্রহ রয়েছে। ২০১৯–এর মে মাস থেকে হাজার হাজার ছোট ব্রডব্যান্ড-বিমিং উপগ্রহ সমন্বয়ে একটি মেগাকন্টেললেশন তৈরির লক্ষ্যে ৬০টি ধাপে স্টারলিংক ইন্টারনেট উপগ্রহ চালু করে স্পেসএক্স। স্পেসএক্সের ইতিমধ্যে ফেডারেল সরকারের কাছ থেকে কয়েক হাজার উপগ্রহ উৎক্ষেপণের অনুমতি রয়েছে। এখন ফেডারেল যোগাযোগ কমিশনের সঙ্গে সাম্প্রতিক এক আলোচনায় স্পেসএক্স জানিয়েছে যে তারা কয়েক হাজার উপগ্রহকে পূর্বনির্ধারিত বা যা অনুমোদন আছে, তার চেয়ে আরও কম উচ্চতায় স্থাপন করতে চায়।

বিজ্ঞাপন

এই প্রস্তাবিত পরিবর্তনে স্টারলিংকের উপগ্রহগুলো আরেকটি প্রস্তাবিত স্যাটেলাইট ইন্টারনেট সেবার পথে স্থাপন হতে পারে। যার নাম প্রজেক্ট কুইপার, যার প্রস্তাব আমাজন দিয়েছিল। সংস্থাটি এখনো কোনো উপগ্রহ চালু করেনি, তবে প্রকল্পের জন্য এটি একটি এফসিসি লাইসেন্স নিশ্চিত করেছে।

আমাজনের বর্তমান পরিকল্পনার মধ্যে রয়েছে প্রজেক্ট কুইপারের কয়েকটি উপগ্রহকে পৃথিবী পৃষ্ঠের ৫৯০ কিলোমিটার ওপরে কক্ষপথে স্থাপন করা। অন্যদিকে স্পেসএক্স তার লাইসেন্সের যে পরিবর্তন আনতে চাচ্ছে, তাতে তারা তাদের তিন হাজার স্যাটেলাইট ৫৪০ থেকে ৫৭০০ কিলোমিটার উচ্চতায় প্রদক্ষিণ করতে পারবে, যা আমাজনগুলোর খুব কাছে। সংস্থাটির আপত্তি এখানেই। তারা মনে করছে তাদের নেটওয়ার্কে স্টারলিংকের হস্তক্ষেপ হবে। তবে স্পেসএক্স এই আশঙ্কা দূর করে দিচ্ছে। এমনকি এ বিষয়ে শঙ্কা নেই জানিয়ে টুইটও করেছে এলন মাস্ক। তবে আমাজনের কাছে বিষয়টি এত সহজ মনে হচ্ছে না। সূত্র: সিএনএন

বিশ্ববাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন