default-image

ধনীদের ওপর কর বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। প্রস্তাব অনুযায়ী প্রান্তিক হার বাড়ানোর পাশাপাশি ধনী ব্যক্তিদের বিনিয়োগের লাভের ওপর কর বাড়ানোর কথা বলা হয়েছে। এই অর্থ শিশুদের যত্ন এবং শিক্ষার জন্য ব্যয় হবে। তবে স্বাস্থ্যসেবার জন্য ব্যবহৃত হবে না। আর এ খবরে গতকাল বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের পুঁজিবাজারে ব্যাপক দরপতন হয়েছে। বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, আগামী সপ্তাহের মধ্যে নতুন মার্কিন পরিবার পরিকল্পনা পুরোপুরি বাস্তবায়নের আশা করছেন প্রেসিডেন্ট। প্রস্তাব অনুযায়ী, ৪ লাখ ডলারের কম আয়ের পরিবারগুলোর ওপর কোনো প্রভাব পড়বে না। হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সোসাকি বলেছিলেন, ‘প্রেসিডেন্ট মনে করেন যারা এটি বহন করতে পারে যেমন করপোরেশন এবং ব্যবসায়ীরা, এটি তাদের ওপর আরোপ হবে।

বিজ্ঞাপন

‘নিউইয়র্ক টাইমস’ জানায়, প্রেসিডেন্টের প্রস্তাব অনুযায়ী শীর্ষ প্রান্তিক আয়কর হার ৩৭ শতাংশ থেকে বেড়ে ৩৯ দশমিক ৬ শতাংশ হবে। এই পরিকল্পনার ফলে ১০ লাখ ডলারের বেশি আয় করা লোকদের জন্য মূলধন মুনাফার ওপর প্রায় দ্বিগুণ (৩৯ দশমিক ৬ শতাংশ) শুল্ক হবে, যেটি এখন ২০ শতাংশ। কিছু কিছু রাজ্যে হয়তো এটি ৫০ শতাংশ ছাড়িয়ে যেতে পারে।

তবে বাইডেনের এই পরিকল্পনা কংগ্রেসে রিপাবলিকানদের কাছ থেকে ব্যাপক প্রতিরোধের মুখে পড়বে, এমনটাই প্রত্যাশা করা হচ্ছে। এমনকি ডেমোক্র্যাটরাও পরিকল্পনাটি সর্বসম্মতভাবে সমর্থন না-ও করতে পারেন।

তবে এখনো চূড়ান্ত না হলেও ইতিমধ্যে এর নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে শেয়ারবাজারে। গতকাল ওয়াল স্ট্রিটে ডাও জোন্স সূচক কমেছে ৪২০ পয়েন্ট। বাজার বিশ্লেষকেরা বলছেন, এটি পাস হলে সূচক ২ হাজার পয়েন্টের বেশি পড়ে যেতে পারে। গতকাল প্রযুক্তিভিত্তিক নাসডাক সূচক কমেছে শূন্য দশমিক ৯ শতাংশ।

বিশ্ববাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন