বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

চিঠিতে বার্নি স্যান্ডার্স লেখেন, ‘বার্কশায়ার হ্যাথওয়ে তো এখন ভালোই করছে, তাহলে শ্রমিকেরা সন্তানসন্ততি নিয়ে খেয়ে পড়ে বাঁচতে ও স্বাস্থ্যসেবা পাবে কি না, এ নিয়ে তাঁদের চিন্তিত হতে হবে কেন? আমি মনে করি না কঠোর পরিশ্রমী এই মার্কিন নাগরিকদের জীবনমানের অবনমন হওয়া উচিত। আপনি (বাফেট) ও বার্কশায়ার হ্যাথওয়ে এর চেয়ে ভালো করতে পারে বলেই আমরা মনে করি।’

বার্নি স্যান্ডার্সের চিঠির ভাষ্যমতে, এই শ্রমিকদের প্রথম বছরে মজুরি বাড়ানো হবে না বলে চুক্তিপত্রে প্রস্তাব করা হয়েছে। চুক্তি সই করলে দুই হাজার ডলার বোনাস দেওয়া হবে। এ ছাড়া দ্বিতীয় বছর ১ শতাংশ এবং তার পরবর্তী তিন বছর ২ শতাংশ হারে মজুরি বৃদ্ধির প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া কোম্পানি কর্মীদের মাসিক চিকিৎসা ভাতা ২৭৫ ডলার থেকে ১ হাজার ডলারে উন্নীত করবে, এমন অঙ্গীকার দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এর বিনিময়ে কর্মীদের প্রাপ্য ছুটির পরিমাণ হ্রাস করা হবে।

বার্নি স্যান্ডার্স ঠিক এখানেই আপত্তি তুলেছেন। তাঁর ভাষ্যমতে, এ চুক্তির এই প্রস্তাব নীতি বিগর্হিত ও অপমানজনক।
কিন্তু দানশীল হিসেবে খ্যাত ওয়ারেন বাফেট বার্নি স্যান্ডার্সের এই চিঠির জবাবে নীতিগত জবাব দেননি, বরং তিনি আইনের পথ দেখিয়ে দিয়েছেন। তিনি বলেন, বার্কশায়ারের সাবসিডিয়ারি কোম্পানির ব্যবস্থাপনা সংশ্লিষ্ট কোম্পানির নির্বাহীদের হাতে, সরাসরি বার্কশায়ার বা বাফেটের হাতে নয়।

চিঠির উত্তরে বাফেট বলেন, ‘আমাদের কোম্পানিগুলো শ্রমিক ও মানবসম্পদজনিত সিদ্ধান্ত পৃথকভাবে নিয়ে থাকে। তবে প্রধান নির্বাহীর নিয়োগে মূল কোম্পানির বক্তব্য থাকে। আপনার এই চিঠি সংশ্লিষ্ট কোম্পানির (প্রেসিশন ক্যাস্টপার্টস) প্রধান নির্বাহীর কাছে পাঠিয়ে দিচ্ছি। তবে এ ব্যাপারে আমি সুপারিশ করব না’।

শ্রমিকসংকট ও অসমতা নিয়ে ওয়ারেন বাফেট সচেতন শিল্পপতি হিসেবে পরিচিত। তিনি ধনীদের ওপর আরও উচ্চ হারে কর আরোপের আহ্বান জানান। এমনকি নিজের সম্পদের বেশির ভাগ দান করে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। তিনি কোনো দিন শ্রমিকদের ইউনিয়ন বিরোধী কথাও বলেননি।

বাফেটের এই খ্যাতির কথা ভেবেই বার্নি স্যান্ডার্স এই চিঠি লেখেন। তিনি বলেন, ‘দেশের (যুক্তরাষ্ট্রের) ক্রমবর্ধমান আয় ও সম্পদ অসমতা নিয়ে আপনি অনেক উচ্চ কণ্ঠ। আপনি ঠিকই বলেছেন, দেশের শ্রমিক পরিবারগুলো সংকটে থাকলেও শীর্ষ ১ শতাংশ ধনী পরিবার ভালো আছে।’

কিন্তু এই সংকট নিরসনে বাফেট নিছক আইনি পথেই হাঁটলেন।

বিশ্ববাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন