বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

এল সালভাদর সরকার দেশজুড়ে ২০০ মেশিন বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই মেশিনের মাধ্যমে বিটকয়েনকে ডলার এবং ডলারকে বিটকয়েনে রূপান্তর করা সম্ভব হবে।

সরকার বলছে, এটি বৈধ করায় প্রতিবছর বিদেশ থেকে দেশে পাঠানো রেমিট্যান্সে প্রায় ৪০০ মিলিয়ন ডলার ফি সাশ্রয় হবে। যদিও বিশ্বব্যাংক ও দেশটির সরকারি তথ্য পর্যালোচনা করে বিবিসি বলছে, এটি ১৭ কোটি ডলারের মতো হবে।
প্রেসিডেন্ট নাইব বুকেলে এক টুইটে বলেন, ‘আমাদের অতীতের দৃষ্টান্তগুলো ভেঙে ফেলতে হবে। এল সালভাদরের বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে এগিয়ে যাওয়ার অধিকার আছে।’

default-image

তবে বিরোধী রাজনীতিবিদেরা বিটকয়েনকে বৈধতা দেওয়ার বিষয়টিকে সরকার ও দেশের জন্য ভালো হচ্ছে বলে মানতে পারছেন না। বিরোধী রাজনীতিবিদ জনি রাইট সোল বলেন, ‘বেশির ভাগ মানুষ ক্রিপ্টোকারেন্সি সম্পর্কে খুব কমই জানে। আমরা যা জানি তা হলো, এটি একটি খুবই অস্থিতিশীল বাজার।’

রাইট সোল বলেন, বিটকয়েন একটি উপযুক্ত জাতীয় মুদ্রা নয়। খুব তাড়াহুড়ো করা হলো। তিনি বলেন, ‘বিটকয়েন আইন সংসদে পাস করতে মাত্র পাঁচ ঘণ্টা সময় লেগেছে। আমরা ক্রিপ্টোকারেন্সি বা বিটকয়েনবিদ্বেষী নই, কিন্তু আমরা বিশ্বাস করি না যে এটি বাধ্যতামূলক হওয়া উচিত বা ব্যবসায়িক লেনদেন বিটকয়েনে গ্রহণ করতে বাধ্য করা উচিত। রাষ্ট্র এটা বৈধ করার ঝুঁকি নিচ্ছে অথচ দিন শেষে আমরা করদাতারাই রাষ্ট্রের অংশ।’

বিশ্ববাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন