default-image

করোনা-আতঙ্কে বিশ্ববাজারে আবারও কমেছে তেলের দাম। নেমে এসেছে ১৮ বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন অবস্থানে।

আজ সোমবার অপরিশোধিত তেলের দাম ৮ শতাংশ কমে হয়েছে ব্যারেলপ্রতি ২২ দশমিক ৫৮ ডলার। ২০০২ সালের নভেম্বরের পর যা সর্বনিম্ন। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক অপরিশোধিত তেলের দাম নেমেছে ২০ ডলারের নিচে। বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

চলতি বছরের শুরু থেকে বিশ্ববাজারে কমতে থাকে তেলের দাম। গত মাসে দাম প্রায় অর্ধেকে নেমে আসে।

মূলত বিশ্বজুড়ে নভেল করোনাভাইরাস মহামারির প্রভাবে ব্যাপক চাহিদা কমেছে জ্বালানি তেলের। দেশে দেশে বন্ধ হয়েছে বিমান চলাচল। লকডাউনের কারণে ঘর থেকে বের হতে পারছে না মানুষ। সব মিলিয়ে কমেছে চাহিদা।


জ্বালানি তেলের বর্তমান বাজার পরিস্থিতি পর্যালোচনা ও করণীয় নির্ধারণে ৫ মার্চ থেকে অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় বৈঠকে বসে ওপেক ও নন-ওপেক দেশগুলো। এতে সিদ্ধান্ত হয়, তেলের দাম বাড়াতে অপরিশোধিত তেলের উৎপাদন দিনে ১৫ লাখ ব্যারেল কমাবে তারা, যা বিশ্বের মোট সরবরাহের প্রায় ৩ দশমিক ৬ শতাংশ।

ওপেক আশা করছিল, রাশিয়া প্রতিদিন ৫ লাখ ব্যারেল উৎপাদন কমাতে সম্মত হবে। তবে এতে সম্মতি জানায়নি ওপেকের মিত্র জোট ওপেক প্লাসের নেতৃত্বে থাকা রাশিয়া। এ কারণে নতুন চুক্তি হওয়ার বিষয়টি ভেস্তে যায়।
এর প্রভাবে শুক্রবার থেকে ব্যাপক দরপতন হয় তেলের দামের। এর মধ্যে গত শনিবার তেলের দাম কমায় সৌদি আরামকো।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0