বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এদিকে ডিজেল-পেট্রলের মূল্যবৃদ্ধির ফলে যে গোটা ভারতজুড়ে সাধারণ মানুষের দুর্ভোগ বাড়বে, তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। বিশেষ করে ডিজেলের দামটাই মানুষকে ভোগান্তিতে ফেলবে বেশি। কারণ, এটি গণপরিবহনের জ্বালানি।

পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতায় আইওসির পাম্পে গতকাল পেট্রলের দাম বেড়ে লিটারে ১০২ দশমিক ১৭ রুপিতে উন্নীত হয়েছে। কলকাতায় পেট্রলের দাম ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ১০০ রুপিতে ওঠে গত ১৭ জুলাই। সেদিন দাম ১০২ দশমিক শূন্য ৮ রুপিতে ওঠে। কলকাতায় সেটাই ছিল এত দিন সর্বোচ্চ দাম। ওই দামটাই ভাঙল আজ।

কলকাতায় গতকাল প্রতি লিটার ডিজেল ৯২ দশমিক ৯৭ রুপি দরে বিক্রি হয়েছে। এর আগে ১৫ জুলাই কলকাতায় ডিজেলের দাম সর্বোচ্চ ৯৩ দশমিক শূন্য ২ রুপিতে ওঠে। সেই রেকর্ড যেকোনো দিন ভেঙে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।
ভারতে এক রাজ্য থেকে আরেক রাজ্যে ডিজেল-পেট্রলসহ বিভিন্ন পণ্যের দাম সাধারণত আলাদা হয়ে থাকে স্থানীয় পর্যায়ে আরোপিত ট্যাক্স, মানে করের কারণে।

ডিজেল-পেট্রল নিয়ে একটি প্রচলিত অভিযোগ হচ্ছে, আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম কমলে দেশে খুব সহজে কমে না। কিন্তু বিশ্ববাজারে দাম বাড়লেই অভ্যন্তরীণ বাজারে খুব দ্রুত দাম বেড়ে যায়। যেমন বিশ্ববাজারে কয়েক মাস ধরে প্রতি ব্যারেল জ্বালানি তেলের দাম ৭০ ডলারের নিচে থাকার পর এখন বেড়ে ৮০ ডলারে উঠতে না উঠতেই অভ্যন্তরীণ বাজারে দাম বাড়তে শুরু করেছে।

সূত্র: বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড

বিশ্ববাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন