default-image

বছরের ঠিক শেষে এসে নতুন শীর্ষ ধনী পেল এশিয়া। টিকা প্রস্তুতকারী ফার্ম ও বোতলজাত পানির ব্যবসা করে এখন এশিয়ার শীর্ষ ধনী ঝং শানশান। আগেই পেছনে ফেলেছিলেন ই–কমার্স জায়ান্ট আলিবাবার প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক মাকে। এবার পেছনে ফেললেন ভারতের রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান মুকেশ আম্বানিকে। এ বছরই কেবল ঝংয়ের সম্পদ বেড়েছে ৭০০ কোটি মার্কিন ডলার। বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

ঝং শানশানের মোট সম্পদের পরিমাণ এখন ৭ হাজার ৭৮০ কোটি মার্কিন ডলার। ব্লুমবার্গ বিলিয়নিয়ার ইনডেক্স অনুযায়ী, ঝং এখন বিশ্বের ১১তম শীর্ষ ধনী। ঝং পরিচিত বেশি লোন উলফ নামে। ঝংয়ের কর্মজীবন বেশ বৈচিত্র্যময়। সাংবাদিকতা, মাশরুমের চাষ এবং স্বাস্থ্যসেবা খাতে কাজ করেছেন তিনি। এপ্রিলে ঝংয়ের বেইজিং ওয়ান্টাই বায়োলজিকাল ফার্মাসি এন্টারপ্রাইজ চীনা শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হয়েছে। কেবল আগস্টে ফার্মে তাঁর নিয়ন্ত্রণকারী অংশটির সম্পদ দুই হাজার কোটি ডলার বেড়েছে।

বিজ্ঞাপন

এপ্রিলে ভ্যাকসিন কোম্পানি শেয়ারবাজারে আনার তিন মাস পর হংকংয়ের শেয়ারবাজারে আনেন তাঁর বোতলজাত পানির প্রতিষ্ঠান নোংফু স্প্রিংকে। ১৯৯৬ সালে ঝেজিয়াং প্রদেশে এটি প্রতিষ্ঠা করেন তিনি। বাজারে আসার পর থেকে এখন পর্যন্ত ১৫৫ শতাংশ বেড়েছে নোংফুর শেয়ার। বেইজিং ওয়ানটাই বায়োলজিক্যালের শেয়ার বেড়েছে দুই হাজার শতাংশের বেশি। করোনার ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর একটি হলো এটি।

৬৬ বছর বয়সী ঝং শানশান সেপ্টেম্বরে জ্যাক মাকে সরিয়ে চীনের শীর্ষ ধনীর অবস্থান নেন। এবার মুকেশ আম্বানিকে সরিয়ে এশিয়ার শীর্ষ ধনী হলেন।

বিশ্ববাণিজ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন