default-image

যুক্তরাজ্যে সব স্টোর বন্ধ করে দিতে পারে যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম পোশাক ও আনুষঙ্গিক রিটেইল শপ গ্যাপ। এ কারণে হাজার হাজার কর্মী ছাঁটাই হওয়ার শঙ্কা তৈরি হয়েছে। বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

এক বিবৃতিতে গ্যাপ জানিয়েছে, আগামী গ্রীষ্মের মধ্যে যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, আয়ারল্যান্ড ও ইতালিতে স্টোর বন্ধ করে দেবে তারা। সেই সঙ্গে যুক্তরাজ্যভিত্তিক ইউরোপীয় সরবরাহ কেন্দ্রও বন্ধ করে দেওয়া হবে। তবে যুক্তরাজ্যে গ্যাপের কতটি স্টোর আছে এবং সেখানে কত কর্মী কাজ করেন, সে বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি কোম্পানিটি।

সাম্প্রতিক বছরগুলোয় বিক্রি বেশ কমে গেছে গ্যাপের। পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়েছে করোনা সংক্রমণের কারণে। মার্চ-মে প্রান্তিকে ৭৪ কোটি পাউন্ড লোকসান গুনেছে গ্যাপ। এখন নিজস্ব স্টোর পরিচালনা করার পরিবর্তে কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি মডেলে ব্যবসা স্থানান্তরিত করা যায় কি না, সে কথা ভাবছে তারা। জুলাইয়ের শেষ নাগাদ ইউরোপজুড়ে গ্যাপের ১২৯টি স্টোর ও ৪০০ ফ্র্যাঞ্চাইজি স্টোর সচল ছিল।

বিজ্ঞাপন
একসময় তরুণদের কাছে জনপ্রিয় থাকলেও জারা, এইচঅ্যান্ডএম ও ফরএভার টোয়েন্টি ওয়ানের মতো সাশ্রয়ী ব্র্যান্ডের সঙ্গে পাল্লা দিতে পারছিল না গ্যাপ। চলতি বছরের শুরুতেই গ্যাপ জানায়, বিশ্বজুড়ে গ্যাপ ও ব্যানানা রিপাবলিকের ২২৫টি অলাভজনক স্টোর বন্ধের পরিকল্পনা করছে তারা।

গ্যাপ ব্র্যান্ড গ্লোবালের প্রধান মার্ক ব্রেটবার্ড বলেন, ‘আমরা পর্যালোচনা করে দেখেছি। আমরা এখন আমাদের ব্যবসা সম্প্রসারণের অংশ হিসেবে তৃতীয় পক্ষের কাছে স্থানান্তরিত করতে আগ্রহী।’ গ্যাপের একজন মুখপাত্র বলেন, তাঁরা ইউরোপীয় ই-বাণিজ্য পরিচালনার বিকল্প উপায়গুলোও দেখছেন।

করোনা প্রতিরোধে নেওয়া লকডাউনের কারণে সাময়িকভাবে বন্ধ রাখার পাশাপাশি যুক্তরাজ্যে অনেক রিটেইল স্টোর স্থায়ীভাবে বন্ধ হয়ে গেছে। লকডাউন শেষে ধীরে ধীরে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান চালু হলেও ক্রেতা উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয়ভাবে কম। মহামারির কারণে গ্রাহকদের অনলাইনে কেনাকাটার অভ্যাস বৃদ্ধিও এ ক্ষেত্রে ভূমিকা রেখেছে।
তবে মহামারি শুরুর আগে থেকেই ক্রেতা আকর্ষণ ধরে রাখতে হিমশিম খাচ্ছিল গ্যাপ।

একসময় তরুণদের কাছে জনপ্রিয় থাকলেও জারা, এইচঅ্যান্ডএম ও ফরএভার টোয়েন্টি ওয়ানের মতো সাশ্রয়ী ব্র্যান্ডের সঙ্গে পাল্লা দিতে পারছিল না গ্যাপ। চলতি বছরের শুরুতেই গ্যাপ জানায়, বিশ্বজুড়ে গ্যাপ ও ব্যানানা রিপাবলিকের ২২৫টি অলাভজনক স্টোর বন্ধের পরিকল্পনা করছে তারা।

মন্তব্য পড়ুন 0