বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত জানুয়ারিতে এক কনফারেন্সে ইলন জানিয়েছিলেন, তিনি আরও কয়েক বছর টেসলার সিইও হয়ে থাকতে চান। তিনি বলেছিলেন, ‘সপ্তাহে সাত দিন ঘুম থেকে উঠে ঘুমাতে যাওয়ার আগপর্যন্ত দিনরাত কাজ করার চেয়ে যদি কিছু অবসর সময় পাওয়া যেত, তাহলে ভালো হতো।’

গত মাসে ইলন মাস্ক টেসলার ১০ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করা উচিত হবে কি না, তা জানতে চেয়ে অনুসারীদের উদ্দেশে একটি টুইট করেন। সে সময় অধিকাংশ অনুসারী শেয়ার বিক্রির পরামর্শ দেন। এরপর প্রায় ১২ বিলিয়ন ডলার মূল্যের শেয়ার বিক্রি করেন ইলন।

default-image

স্পেসএক্স ও টেসলার ছাড়াও ব্রেইন চিপ স্টার্টআপ নিউরোলিংক এবং অবকাঠামো নির্মাণ প্রতিষ্ঠান দ্য বোরিং কোম্পানিও পরিচালনা করেন ইলন মাস্ক।

ইলন মাস্কের ক্যারিয়ারের অনেক কিছুই এখন সবার জানা। তাঁর সাফল্যভরা জীবনের কিছু রহস্যঘেরা দিকও আছে। যেমন ইলন মাস্ক চাকরি চেয়ে প্রত্যাখ্যাত হয়েছিলেন। নব্বইয়ের দশকে একটি ইন্টারনেট কোম্পানিতে চাকরি খুঁজতে গিয়ে বেশ সংগ্রাম করতে হয়েছিল তাঁকে। ১৯৯৫ সালে তিনি স্টার্টআপ বা উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান নেটস্কেপে একটি পদে আবেদন করে প্রত্যাখ্যাত হয়েছিলেন।

চাকরি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন