বাংলাদেশের অভিজ্ঞতায় ভারতেও চালু গুগলের চাকরির অ্যাপস

* গুগল ভারতেও চালু করল কর্ম জবস অ্যাপ
* চাকরি খুঁজতে সহায়তা করবে কর্ম অ্যাপ
* বাংলাদেশ-ইন্দোনেশিয়ার পর ভারতে কর্ম অ্যাপ

বিজ্ঞাপন
default-image

‘কর্ম জবস’ নামে চাকরি খোঁজার নতুন একটি অ্যাপ নিয়ে এসেছে গুগল। এই মুহূর্তে চাকরির সন্ধান করছেন যাঁরা, তাঁদের জন্যই এই অ্যাপ। মূলত মহামারি করোনা-পরবর্তী পৃথিবীতে কর্মসংস্থানে সহায়তার জন্য ভারতে চালু হলো কর্ম জবস।
২০১৮ সালে প্রথমে বাংলাদেশে চালু করা হয় কর্ম জবস। এরই ধারাবাহিকতায় ইন্দোনেশিয়ায় চালু হয়েছিল কর্ম জবস। দুই দেশে ভালো সাড়া মেলায় এবার ভারতে চালু হলো এই অ্যাপ। নতুনেরা এখানেই খুঁজে পাবেন নিজেদের পছন্দের চাকরি।
গুগল জানিয়েছে, গত বছর ‘গুগল পে’র মাধ্যমে চাকরিসন্ধানীদের জন্য বিভিন্ন সুযোগ হাতের কাছে এনে দেওয়া হয়েছিল। সেই চাহিদাই পূর্ণ করতে এখন ব্যবসা, বাণিজ্য এবং ম্যানেজমেন্টের চাকরির সন্ধান থাকবে কর্ম জবস অ্যাপে।

গুগলের আঞ্চলিক ম্যানেজার এবং অপারেশনস লিড (কর্ম জবস) বিকি রাসেল বলেন, ‘২০১৮ সালে প্রথমে বাংলাদেশে শুরু হয়েছিল কর্ম অ্যাপ। পরে কর্ম জবস ইন্দোনেশিয়ায় চালু হয়। গত বছর গুগল পে অ্যাপ্লিকেশনে গুগল ‘জবস অব স্পট’ ব্র্যান্ডের আওতায় ভারতেও চাকরির সন্ধান দেওয়া শুরু হয়। এবার আমরা পুরো ভারতে চালু করলাম কর্ম অ্যাপস।’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গুগল এক ব্লগ পোস্টে জানিয়েছে, মহামারি করোনা-পরবর্তী পৃথিবীতে কর্মসংস্থানে সহায়তার জন্য ভারতে চালু হলো কর্ম জবস। ভারতের চাকরিপ্রত্যাশীদের চাকরির সন্ধান এবং চাকরির আবেদনে সহায়তা করার জন্য আমাদের কর্ম জবস অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপটি আনছি।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

গুগলের নিজস্ব ব্লগে বলা হয়েছে, সম্প্রতি চালু হওয়ার পর জোমাটো এবং ডানজোর মতো সংস্থাগুলো কর্ম অ্যাপে ২০ লাখের বেশি কর্মী নেওয়ার জন্য বিজ্ঞপ্তি পোস্ট করেছে। তারা দক্ষ লোক নেওয়ার জন্য কর্ম অ্যাপসকেই বেছে নিয়েছে। চাইলেই অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরা কর্ম অ্যাপটি প্লে স্টোর থেকে ফ্রি ডাউনলোড করতে পারবেন।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

যে কেউ চাইলে কর্ম অ্যাপ থেকে চাকরি খুঁজতে পারবেন। মাত্র কয়েক মিনিটে নিজের প্রোফাইল এখানে তৈরি করা যায়। এই অ্যাপ থেকে নিজের বায়োডাটা যে কেউ চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানে পাঠাতে পারবেন। প্রিন্ট এবং বায়ো আপডেটও করে রাখা যায় কর্ম অ্যাপে। প্লে স্টোর থেকে এ অ্যাপ নামানোর পরই চাকরির আবেদন করতে পারবেন চাকরিপ্রত্যাশীরা। চাকরির আবেদনের প্রক্রিয়াও অনুসরণ করতে পারবেন এই অ্যাপে। এখানে নিজের ডিজিটাল বায়োডাটা তৈরি করতে পারবেন।

তথ্যসূত্র: ইন্ডিয়া টুডে

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন