বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেন, ‘আগে প্রাথমিকের প্রশ্নপত্র জেলা পর্যায়ে পাঠানো হতো। এ প্রক্রিয়ায় বিভিন্ন পর্যায়ে অনেক বেশি লোক সম্পৃক্ত হয়ে পড়ে। তাই এটি এড়ানোর জন্য এবার আমরা কেন্দ্রীয়ভাবে প্রশ্নপত্র পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

সংবাদ সম্মেলনে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আলমগীর মোহাম্মদ মনসুরুল আলম বলেন, ২০১৯ সালের নিয়োগ বিধি মেনে পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে। এই নিয়োগ বিধি অনুয়ায়ী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদে ৬০ শতাংশ নারী কোটা ও ২০ শতাংশ পোষ্য কোটা রাখা হয়েছে।

প্রাথমিকের ইতিহাসে এটিই এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি। ২০২০ সালের ২৫ অক্টোবর অনলাইনে আবেদন শুরু হয়। আবেদন করেন ১৩ লাখ ৯ হাজার ৪৬১ প্রার্থী। সে হিসাবে ১টি পদের জন্য প্রতিযোগিতা হবে ২৯ প্রার্থীর মধ্যে।

সবচেয়ে বেশি আবেদন পড়েছে ঢাকা বিভাগে, ২ লাখ ৪০ হাজার ৬১৯টি। এরপর রাজশাহীতে ২ লাখ ১০ হাজার ৪৩০, খুলনায় ১ লাখ ৭৮ হাজার ৮০৩, ময়মনসিংহে ১ লাখ ১২ হাজার ২৫৬, চট্টগ্রামে ১ লাখ ৯৯ হাজার ২৩৬, বরিশালে ১ লাখ ৯ হাজার ৩৪৪, সিলেটে ৬২ হাজার ৬০৭ এবং রংপুর বিভাগে ১ লাখ ৯৬ হাজার ১৬৬টি।

খবর থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন