বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে সব সনদ ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের ফটোকপি (সত্যায়িত) জমা দেওয়ার সময় ওই সব কাগজপত্রের মূল কপি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে দেখাতে হবে।

মৌখিক পরীক্ষার জন্য নির্বাচিত প্রার্থীরা ২৩ মের মধ্যে কাগজপত্র জমা দিতে ব্যর্থ হলে তাঁদের মৌখিক পরীক্ষার কার্ড ইস্যু করা হবে না।

default-image

মৌখিক পরীক্ষার সময় সব সনদপত্র, প্রাপ্তি স্বীকারপত্র ও অন্য কাগজপত্রের মূল কপি প্রার্থীকে সঙ্গে আনতে হবে। মৌখিক পরীক্ষার তারিখ প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে পরে প্রকাশ করা হবে।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪৫ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগের প্রথম ধাপের লিখিত পরীক্ষার ফল ১২ মে প্রকাশ করা হয়েছে। এতে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৪০ হাজার ৮৬২ জন। প্রথম ধাপে ২২ জেলায় লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ২২টি জেলার মধ্যে কিছু জেলার সব কটি উপজেলায় পরীক্ষা হয়, আর কিছু জেলার আংশিক উপজেলায় পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

দ্বিতীয় ধাপের লিখিত পরীক্ষা ২০ মে এবং তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৩ জুন।

তিন ধাপে পরীক্ষা নেওয়া শেষে উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীদের আগামী জুলাইয়ের মধ্যে নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। প্রাথমিকের ইতিহাসে এটিই এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি। ২০২০ সালের ২৫ অক্টোবর অনলাইনে আবেদন শুরু হয়। আবেদন করেছেন ১৩ লাখ ৯ হাজার ৪৬১ প্রার্থী। সে হিসাবে একটি পদের জন্য প্রতিযোগিতা হচ্ছে ২৯ প্রার্থীর মধ্যে।

খবর থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন